তারিখ : ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

বন্দুকের নলের মুখে বিচার বিভাগ নিয়ন্ত্রণের বিষয়টি সিনহার বক্তব্যে পরিস্কার

বন্দুকের নলের মুখে বিচার বিভাগ নিয়ন্ত্রণের বিষয়টি সিনহার বক্তব্যে পরিস্কার
[ভালুকা ডট কম : ২০ সেপ্টেম্বর]
বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেছেন,সুপরিকল্পিতভাবে দেশকে ধ্বংস করার সব ষড়যন্ত্র সম্পন্ন করেছে সরকার। বন্দুকের নলের মুখে দেশ ত্যাগ ও পদত্যাগে বাধ্য হওয়া প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা তার বইতে উল্লেখ করেছেন কীভাবে তাকে দেশ ছাড়তে বাধ্য করা হয়েছে, কীভাবে তাকে পদত্যাগে বাধ্য করে বিচার বিভাগকে সরকার নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত বুধবার সাবেক এ প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র সিনহা রচিত 'অ্যা ব্রোকেন ড্রিম: রুল অব ল, হিউম্যান রাইটস অ্যান্ড ডেমোক্রেসি' বইটি প্রকাশিত হয়েছে। অনলাইন সংস্থা আমাজান ডটকম পরিবেশিত এ বইটির ব্যাপারে ব্যাপক পাঠক চাহিদা সৃষ্টি হয়েছে। 

আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে নয়া পল্টনে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে রিজভী আহমেদ আরো বলেন, এসকে সিনহার বক্তব্যে এটা পরিষ্কার হয়েছে যে, বন্দুকের নলের মুখে বিচার বিভাগকে নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে। আর এভাবেই সরকার বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা সাজানো মামলায় রায় দিয়ে কারাবন্দি করে এক নম্বর মিশন কার্যকর করেছে। এরপর এখন দুই নম্বর মিশন কার্যকর করতে বিএনপি’র ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ২১ আগস্টের মামলায় আগামী ১০ অক্টোবর রায় দেওয়া হবে।

রিজভী বলেন, ১৪ বছর ঝুলিয়ে রাখার পর আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ের তারিখ ঘোষণা সুপরিকল্পিত নীল নকশারই অংশ। সদ্য পাস হওয়া ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের সমালোচনা করে রিজভী বলেন, বাংলাদেশের মানুষের মুখ বন্ধ করতে, গণমাধ্যমের হাত-পা বেঁধে ফেলতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন পাস করা হয়েছে। সরকারের লাখ লাখ কোটি টাকার দুর্নীতি ধামাচাপা দিতেই এই ‘কালো আইন’ করা হয়েছে।

বিএনপির এই নেতা বলেন,গণমাধ্যমে অথবা যেকোনো মাধ্যমেই যাতে দুর্নীতির কোনো খবর প্রকাশিত না হয় অথবা প্রকাশ করতে না পারেন, সে জন্যই এই ন্যক্কারজনক কালো আইন তৈরি করা হলো। এ আইনে মানুষের বাক-ব্যক্তিস্বাধীনতা হরণ করা হয়েছে। দুর্নীতি ও মানবাধিকার লঙ্ঘনের মতো অপরাধের বিস্তার লাভ করার সুযোগ করে দেওয়া হয়েছে। এটি সংবিধানবিরোধী একটি আইন।

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ের বিষয়ে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব বলেন,বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে ২১ আগস্টের মামলায় আগামী ১০ অক্টোবর রায় দেওয়া হবে। দীর্ঘ ১৪ বছর ঝুলন্ত রাখার পর আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রাক্কালে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায়ের তারিখ ঘোষণা সুপরিকল্পিত নীলনকশারই অংশ। রায় প্রকাশের আগেই সরকারের মন্ত্রী ও নেতারা বলছেন, এ রায় প্রকাশিত হওয়ার পর বিএনপি বিপাকে পড়বে। তার মানে, সরকার জানে কী রায় হতে যাচ্ছে অথবা সরকারই ২১ আগস্ট মামলার রায় লিখে দিচ্ছে। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলা নিয়ে ন্যায়বিচার সমুন্নত রাখা হবে কি না, তা নিয়ে জনমনে সন্দেহ দেখা দিয়েছে। #



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অন্যান্য বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৪৫ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই