তারিখ : ২০ জুলাই ২০১৯, শনিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

দেশে বেড়েই চলেছে অগ্নি দুর্ঘটনা,জনমনে আতঙ্ক

দেশে বেড়েই চলেছে অগ্নি দুর্ঘটনা,জনমনে আতঙ্ক
[ভালুকা ডট কম : ০৯ এপ্রিল]
সাম্প্রতিক সময়ে অগ্নিকাণ্ডের আতঙ্ক এক ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। গত কয়েকমাসে রাজধানীর ঘনবসতিপূর্ণ অবাসিক-বাণিজ্যিক এলাকা চকবাজার, বনানীর বহুতল বিশিষ্ট ভবন, মিরপুরের বস্তি এবং কয়েকটি বাজারে পরপর আগুনের ঘটনায় জনমনে আতঙ্ক বিরাজ করছে। এর মধ্য সোমবার সকালে দেশের প্রধান বিমানবন্দর শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এবং রাতে কুমিল্লা রপ্তানি প্রক্রিয়াজাত অঞ্চলে (ইপিজেড) আগুন লাগার ঘটনা ঘটে।

ফায়ার ব্রিগেড সুত্রে জানা গেছে, সোমবার সকাল ৮টা ৪ মিনিটে হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের তিন তলা ভবনের তৃতীয় তলায় কার পার্কিংয়ে একটি স্টোর রুমে আগুন লাগে। খবর পেয়ে কুর্মিটোলা ও উত্তরা ফায়ার সার্ভিস স্টেশন থেকে তিনটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে সোয়া ঘণ্টা চেষ্টার পর সকাল ৯টা ২০ মিনিটে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। তবে এ ঘটনায় কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

ওদিকে, কুমিল্লা ইপিজেডে একটি সুতা কারখানায় সোমবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে আগুনের সূত্রপাত হয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করে।  কারখানার ভেতর বিপুল পরিমাণ সুতা ও তুলা থাকায় খুব কম সময়েই আগুন দুই তলাবিশিষ্ট ওই কারখানায় ছড়িয়ে পড়ে। দীর্ঘ আট ঘণ্টা পর মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে বলে জানিয়েছেন ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তারা। তারা জানিয়েছেন, পানির সঙ্কট দেখা দেয়ায় পাম্প চালু করে বিকল্প উপায়ে পানি সংগ্রহ করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে বেশি সময় লেগেছে। আগুনে কয়েক কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করছে কর্তৃপক্ষ।

গত শনিবার রাতে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় বাড়ীতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে একই পরিবারের মাসহ তিন সন্তান দগ্ধ হয়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় ওই রাতেই তাদের ঢাকা মেডিকেল খলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রথমে ৫ বছর বয়সী ছেলে সাফওয়ান এবং পরে  গতকাল (সোমবার) সকালে মা ফাতেমা মারা গেছেন। নিহত ফাতেমার ছেলে সাইফ আলী রাফি (১১) এবং মেয়ে ফারিয়া ফারজানা (৯)  আশংকাজনক অবস্থায় এখনো ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

গত ২৮ মার্চ রাজধানীর বনানীর এফআর টাওয়ারে ভয়াবহ আগুন নেভাতে গিয়ে আহত কুর্মিটোলা ফায়ার স্টেশনের ফায়ারম্যান সোহেল রানা সিঙ্গাপুরের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত সোমবার ইন্তেকাল করেন। সোমবার রাত ১০টা ৪০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে সোহেল রানার লাশবাহী সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট।

আজ সকালে ফায়ার সার্ভিস সদর দফতরে জানাজার আগে ফায়ার সার্ভিসের পতাকায় মোড়ানো কফিনে ফায়ারম্যান সামনে বিউগলের সুর বাজিয়ে শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করে  ফায়ার সার্ভিসের চৌকস একটি দল। জানাজা শেষে তার লাশ নিয়ে যাওয়া হয় গ্রামের বাড়ি কিশোরগঞ্জের ইটনায়। সেখানে দ্বিতীয় জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। #





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অন্যান্য বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৩ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই