তারিখ : ২১ জুলাই ২০১৯, রবিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

তজুমদ্দিনে মামলা দিয়ে হয়রানির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

তজুমদ্দিনে ঘরবাড়ি থেকে উৎখাতের চেস্টায় মামলা দিয়ে হয়রানির প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন
[ভালুকা ডট কম : ১৫ জুন]
ভোলার তজুমদ্দিনে বসবাড়ি থেকে উৎখাত করার চেষ্টায় মামলা দিয়ে হয়রানি করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে ভোক্তভোগী পরিবার। শনিবার বিকালে তজুমদ্দিন প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে উপজেলার চাঁদপুন ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের মৃত আঃ রহিমের ছেলে মোঃ জয়নাল আবদীন লিখিত অভিযোগে জানান,

একই বাড়ির প্রতিবেশী মৃত দীল মোহাম্মদের কাছ থেকে গত ২৮/১০/২০০৭ সালে সাব রেজিষ্ট্রি নং ৫২৬ দলিল মূলে দুই শতাংশ জমির মালিক হইয়া ভোগ দখল করিয়া আসিতেছি যার খতিয়ান নং ২২৩, দাগ নং ২৮৮৩,২৮৮৭, ২৮৮৮, ২৮৮৯,২৯০৬ এই জমিটুকু আমার বসঘর সংলগ্ন। আমার স্ত্রীসহ আমি চট্টগ্রাম কর্মরত আছি। ছেলেরাও বাড়িতে থাকে না। আমার এক মেয়ে ও ছেলের বউরা বাড়িতে অবস্থান করছে। এমতাবস্থায় ২শতাংশ জমি দাতার ছেলে কাঞ্চন ও তার স্বজনরা আমাকে বাড়ি থেকে উৎখাত ও বেদখল করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়। তারা কারণে অকারণে আমাদের সাথে বিবাদে জড়িত হয়। আমার জায়গা থেকে নারিকেল, সুপারি, আম-কাঠালসহ বিভিন্ন ফল জোড়পূর্বক নিয়ে যায়। বাঁধা দিলে অকর্থ ভাষায় গালাগালি ও মারপিট এবং হুমকি ধামকি প্রদান করে। গত ১৬ এপ্রিল ২০১৯ ইং তারিখে প্রতিপক্ষ মোঃ কাঞ্চন তার ছেলে মোঃ মিজান স্ত্রী রাশেদা বেগম মেয়ে সাহিদা ও মিজানের স্ত্রী জোসনাসহ ৭/৮ জন মিলে আমার জায়গা থেকে ফল ফলাদি নেয়ার সময় আমার মেয়ে তাছলিমা, আকলিমা ও রিমা বাঁধা দিয়ে তাদেরকে এলোপাতাড়ি মারপিট করলে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আমরা চট্টগ্রাম থেকে থানায় গেলে মামলা গ্রহণ করা হয়নি। পরে আমার আদালতের আশ্রয় নেই। আথচয় আমি আমার স্ত্রী বাড়িতে না থাকা সত্ত্বেও আমাদের পরিবারকে উল্টো মামলা দিয়ে ফাঁসানো হয়।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো জানান, বর্তমানে মামলা দিয়ে হয়রানি করে আমাদেরকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে জমি দখলের ষড়যন্ত্র করছে কাঞ্চন গংরা। আমার পরিবারকে বিভিন্ন সময় হুমকি-ধামকি দিয়ে ভয়ভীতির সৃষ্টি করছে। আমাকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছেন, বর্তমানে নিরাপত্তহীনতায় রয়েছি।

এ ব্যাপারে জানার জন্য কাঞ্চনের কাছে ফোন দিলে তার ছেলে মিজান তার দাদার কাছ থেকে জমি কিনার কথা স্বীকার বলেন, আমরা তাদেরকে জমি কিনতে নিষেধ করেছি। আমার দাদার থেকে কিনে থাকলে তার কাছ থেকেই বুঝে নিতে বলেন। আর না হয় আমাদেরকে জমি ছেড়ে দিতে বলেন আমরা টাকা দিয়ে দিবো।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

মিডিয়া বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৩ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই