তারিখ : ১৮ আগস্ট ২০১৯, রবিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

গফরগাঁওয়ে বিধবাকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা

গফরগাঁওয়ে বিধবাকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা,গুজবে কান না দেওয়ার জন্য পুলিশের আহবান
[ভালুকা ডট কম : ২১ জুলাই]
ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলায় দুই সন্তানের জননী নিলুফা ইয়াসমিন(৩২)নামে এক বিধবাকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা করেছে অজ্ঞাত পরিচয় দূবৃর্ত্তরা।ঘটনাটি শনিবার রাতে রাওনা ইউনিয়নের দীঘা গ্রামে।বিধবার স্বামীর নাম মৃত ইব্রাহীম কাজল।

ঘটনাটি এলাকায় গলা কাটা চক্রের কাজ বলে প্রচার হলেও বাস্তবে এঘটনার কোন সত্যতা পাওয়া যায়নি।গফরগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আহাদ খান জানান,এটি একটি বিভ্রান্তিকর তথ্য।মানুষ যাতে ছেলে ধারা,গলাকাটা গুজবের বিষয়ে কান না দেয় এজন্য তিনি জনগণের প্রতি আহবান জানান।

জানাযায়,রাত আনুমানিক পৌনে আটটার দিকে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বের হয় বিধবা নিলুফা ইযাসমিন।এসময় ঘরের পাশে ওৎ পেতে থাকা বোরকা পরিহিত অজ্ঞাত দূবৃর্ত্তরা নিলুফা ইয়াসমিনকে মুখ চেপে বাড়ি পাশের জঙ্গলে নিয়ে যায়।পরে তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা করে দূবৃর্ত্তরা।এসময় নিলুফা ইয়াসমিনের ডাক চিৎকারে মাদ্রাসা পড়ুয়া মেয়ে তানজিলা প্রিমা এবং প্রতিবেশিরা এগিয়ে আসলে দূবৃর্ত্তরা পালিয়ে যায়।এতে নিলুফা ইয়াসমিনে গলায় দুটি গুরুতর জখম হয়।আশঙ্কাজনক অবস্থা প্রথমে তাকে গফরগাঁও এবং পরে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

নিলুফা ইয়াসমিনে মেয়ে তানজিলা প্রিমা জানান,রাত পৌনে আটটার দিকে মা বাড়িতে টয়েলেটে যায়।টয়েলেটটি বসত ঘর থেকে একটু দূরে।হঠাৎ মায়ের চিৎকার শুনে টয়েলেটের দিকে দৌড়ে ছুটে যাই।গিয়ে দেখি মায়ের শরীর রক্তাক্ত।মা চিৎকার করতে করতে বলে বোরকা পরিহিত অজ্ঞাত দূবৃর্ত্তরা গলা কাটতে চেয়েছিল।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অপরাধ জগত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই