তারিখ : ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

শার্শায় জাতীয় শোক দিবস পালিত

শার্শায় জাতীয় শোক দিবস পালিত
[ভালুকা ডট কম : ১৫ আগস্ট]
বৃহস্পতিবার সকালে শার্শার প্রশাসন ও উপজেলা আওয়ামীলীগের আয়োজনে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪৪তম শাহাদত বার্ষিকী পালন উপলক্ষে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কুমার মন্ডলের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে সংসদ সদস্য আলহাজ শেখ আফিল উদ্দিন তার বক্তব্যে বলেছেন, পৃথিবীর এই জঘন্যতম হত্যাকান্ড থেকে বাঁচতে পারেননি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। আজ সেই ভয়াল ১৫ আগস্ট, জাতীয় শোক দিবস।

তিনি আরো বলেন,১৯৭৫ সালের শোকাবহ এই কালো দিবসের ভোর রাতে সেনাবাহিনীর কিছু সংখ্যক বিপদগামী সদস্য ধানমন্ডির বাসভবনে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করে। ঘাতকরা শুধু বঙ্গবন্ধুকেই হত্যা করেনি, তাদের হাতে একে একে প্রাণ হারিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিনী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব, বঙ্গবন্ধুর সন্তান শেখ কামাল, শেখ জামাল ও শিশু শেখ রাসেলসহ পুত্রবধু সুলতানা কামাল ও রোজি জামাল। পৃথিবীর এই জঘন্যতম হত্যাকান্ড থেকে বাঁচতে পারেননি বঙ্গবন্ধুর অনুজ শেখ নাসের, ভগ্নিপতি আবদুর রব সেরনিয়াবাত, তার ছেলে আরিফ, মেয়ে বেবি ও সুকান্তবাবু, বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে যুবনেতা ও সাংবাদিক,মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক শেখ ফজলুল হক মণি, তার অন্তঃস্বত্ত্বা স্ত্রী আরজু মনি এবং আবদুল নাঈম খান রিন্টু ও কর্নেল জামিলসহ পরিবারের ১৬ জন সদস্য ও ঘনিষ্ঠজন। এ সময় বঙ্গবন্ধুর দু’কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা বিদেশে থাকায় প্রাণে রক্ষা পান।

তিনি বলেন,আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অন্যতম লক্ষ্য হচ্ছে প্রকৃত অর্থেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বাস্তবায়ন করা। যেই আদর্শের ভিত্তিতে বঙ্গবন্ধু দেশ পরিচালনা করেছিলেন তিনিও সেই আদর্শ বুকে ধারন করে দেশের উন্নয়ন করে চলেছেন। বিএনপি নেতারা নিরবচ্ছিন্ন দুর্নীতি, অর্থপাচার ও এতিমদের অর্থ লুটপাটের সঙ্গে তারা জড়িত ছিল এবং নেতাকর্মীরা মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করেছে। দেশে সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদের পাশাপাশি আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদেরও ওপর নির্বিচারে হত্যা ও নির্যাতন চালায় তারা। মনে রাখতে হবে, যেন ঐ প্রেতাত্মারা আর ক্ষমতায় না আসতে পারে।

এর আগে জাতীয় শোক দিবসে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়েছেন সংসদ সদস্য আলহাজ শেখ আফিল উদ্দিন ও উপজেলা আ,লীগের সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল হক মঞ্জু। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় শার্শা উপজেলা চত্বরে তার প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান তারা। ফুল দেওয়ার পর সেখানে কিছু সময় নীরবে দাঁড়িয়ে থাকেন সংসদ সদস্য আলহাজ শেখ আফিল উদ্দিন সহ রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা। পুলিশ বাহিনীর একটি চৌকস দল এ সময় সশস্ত্র সালাম জানায়। এরপর কোরআন তেলাওয়াতের মাধ্যমে ১৫ অগাস্টের নিহতদের আত্মার শান্তি কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

এদিকে সকাল সাড়ে ৯টায় উপজেলা আওয়ামীলীগের আয়োজনে এক শোক র‌্যালী শার্শা সদর বাজার প্রদক্ষিন করেন। যার নেতৃত্ব দেন সংসদ সদস্য আলহাজ শেখ আফিল উদ্দিন। আলোচনা সভা শেষে শোক দিবস উপলক্ষে বিভিন্ন প্রতিযোগীতায় অংশ গ্রহনকারীর মাঝে পুরুস্কার বিতরন করেন সংসদ সদস্য।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ নুরুজ্জামান, যুগ্ম সাধারন অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মেহেদি হাসান, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহিম সরদার, সাধারন সম্পাদক রাসেল সহ আওয়ামীলীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। #





 





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকার বাইরে বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৮৯ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই