তারিখ : ২৩ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

অবৈধভাবে ভর্তি,ছাত্রলীগ নেতাদের ঢাবি থেকে বহিষ্কারের দাবি

অবৈধভাবে ভর্তি,ছাত্রলীগ নেতাদের ঢাবি থেকে বহিষ্কারের দাবি এবং সংশ্লিষ্টদের প্রতিক্রিয়া
[ভালুকা ডট কম : ১৮ সেপ্টেম্বর]
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা ছাড়াই ভর্তি হওয়া ছাত্রলীগ নেতাদের ছাত্রত্ব বাতিলের দাবিসহ নানা অনিয়মের প্রতিবাদে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর আজ সকালে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যম্পাসে হামলার ঘটনা ঘটে।

পরীক্ষা ছাড়া ভর্তি হওয়া ছাত্রলীগ নেতাদের ছাত্রত্ব বাতিলসহ তিন দফা দাবিতে পূর্বঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী বুধবার বেলা ১২ টার দিকে ব্যবসায় অনুষদের ডীন শিবলী রুবাইতুল ইসলামের কার্যালয় ঘেরাও করে বামপন্থী ছাত্র সংগঠন, বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ ও স্বতন্ত্র জোট। এ সময় সেখানে  আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা চালায় ছাত্রলীগের কর্মীরা। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে।

এর আগে এই দাবিতে গতকাল মঙ্গলবার ক্যাম্পাসে মিছিল করেছে আন্দোলনকারীরা। আন্দোলনকারীদের তিনটি দাবি হল- যারা অবৈধভাবে ভর্তি হয়েছেন তাদের ছাত্রত্ব ও ডাকসুর পদ বাতিল করে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করে শূন্য পদগুলোতে দ্রুত উপনির্বাচন দেয়া এবং ভুয়া ভর্তির সাথে জড়িত ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডীন অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের পদত্যাগ।

এ প্রসঙ্গে অনুষদের ডিন রুবাইয়াতুল ইসলাম বলেন, তিনি শিক্ষকদের ভোটে  নির্বাচিত ডীন, কেউ তাকে এ পদে নিয়োগ দেয় নি। তাই কয়েকজন ছাত্র এসে চাইলেই তিনি পদত্যাগ করতে পারেন না। আর বিশ্ববিদ্যালযের ভাইস চ্যান্সেলর ড. মো. আখতারুজ্জামান সাফ বলে দিয়েছেন, কোন রকম অনিয়ম হয়নি এ ভর্তি প্রক্রিয়ায়।

এদিকে, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নূর বলেছেন, পরীক্ষা ছাড়াই ভর্তি হওয়া ছাত্রলীগ নেতাদের ছাত্রত্ব বাতিল ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিনের পদত্যাগসহ ছাত্রদের সব দাবি মেনে না নিলে কঠোর আন্দোলন করা হবে।

উল্লেখ্য, বিগত ডাকসু নির্বাচনকে সামনে রেখে  ছাত্রলীগেরর ৩৪ জন নেতার ছাত্রত্ব বহাল দেখাতে তাদেরকে  ব্যাবসা শিক্ষা অনুষদের অধীনে সান্ধ্যকালীণ কোর্সে ভর্তি করা হয়। সে কোর্সে ভর্তি পরীক্ষা শেষ হবার একমাস পর ভিসি’র চিরকুটের মাধ্যমে তাদের অবৈধভাবে ভর্তি করিয়ে নেন অনুষদের ডীন রুবাইয়াতুল ইসলাম। ভর্তিপরীক্ষা ছাড়া সান্ধ্যকালীন কোর্সে ভর্তি হয়ে এদের আটজন কেন্দ্রীয় ছাত্রসংসদ ডাকসুতেও নির্বাচিত হয়েছেন ।

বিষয়টি গনমধ্যমে প্রকাশ পাবার পর ছাত্ররা বিক্ষুব্ধ হয়ে আন্দোলনে নামে। এ রকম পরীক্ষা ছাড়া ভর্তিকে ভৌতিক আখ্যা দিয়ে বামপন্থী ছাত্র সংগঠণের কর্মীরা রোববার ( ১৫ সেপ্টেম্বর) ক্যাম্পাসে ঝাড়ু নিয়ে, ধূপধুনো জ্বেলে তান্ত্রিক সেজে ‘দুর্নীতির ভূত তাড়ানো’ র অভিনব কর্মসূচির আয়োজন করে ।

এছাড়া, পরীক্ষা ছাড়া ভর্তি হওয়া ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতাদের ছাত্রত্ব বাতিলের দাবিতে মঙ্গলবার একাধিক বামপন্থী ছাত্র সংগঠন, বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ ও স্বতন্ত্র জোট ক্যাম্পাসে মশাল মিছিল করেছে।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

শিক্ষাঙ্গন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৯২৯ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই