তারিখ : ২৩ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নওগাঁয় শিল্পীর রঙের ছোঁয়ায় জীবন্ত হয়ে উঠছে দূর্গার রূপ

নওগাঁয় ৭শ ৮৮টি পূজা মন্ডবে শিল্পীর রঙের ছোঁয়ায় জীবন্ত হয়ে উঠছে দূর্গার রূপ
[ভালুকা ডট কম : ২৪ সেপ্টেম্বর]
আর মাত্র কয়েকদিন। হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় শারদীয় দূর্গা উৎসব। দিন যতই এগিয়ে আসছে নওগাঁর ১১টি উপজেলায় শিল্পীর রঙের তুলির ছোঁয়ায় জীবন্ত হয়ে উঠছে দূর্গা দেবী। মাটির শিল্পীদের নিপুন হাতে ইতোমধ্যে মাটির কাজ শেষ করে এখন চলছে রঙ তুলির কাজ। শিল্পীর রঙ তুলির আঁচড়ে গড়ে তোলা হচ্ছে দশভ’জা দেবীদুর্গাসহ বিভিন্ন দেবদেবীর প্রতিমূর্তী।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস দুষ্টের দমন আর শিষ্টের পালনের জন্যই দেবী দুর্গার স্বর্গ থেকে আগমন  ঘটেছিলো মর্ত্যলোকে। সনাতন ধর্মাবলম্বীদের কাছে দেবীদুর্গা শক্তি ও সুন্দরের প্রতীক। প্রতি বছর অশ্বরের বিনাশ কল্পে মা দেবী দূর্গা এই ধরাধামে আবির্ভুত হয়। তাই সনাতন ধর্মাবলম্বীরা মনে করেন, সমাজ থেকে অন্যায় অবিচার গ্লানি দূর করার জন্যই এই পূজার আয়োজন। এই উদ্দেশ্যকে সামনে রেখে সারাদেশের ন্যায় নওগাঁর আত্রাইয়ে শুরু হতে যাচ্ছে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবাচাইতে বড় উৎসব দুর্গা পুজা। আর এ পুজাকে কেন্দ্র করে প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন মৃৎ শিল্পীরা। শিল্পীর তুলির রঙয়ের আঁচড়ে মূর্ত হয়ে উঠেছে দেবীর রুপ।

এদিকে জেলার সকল হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা মা দেবী দুর্গাকে বরণ করতে সনাতন ধর্মাবলম্বীরা এখন ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। মায়ের জন্য তাদের এখন শুধু অপেক্ষার পালা। এরই সুবাদে ঘরে ঘরে চলছে আনন্দ উৎসব ও পূজার প্রস্ততি। নির্ধারিত সময় অনুযায়ী আগামী ৪অক্টোবর শুরু হবে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব শারদীয় দূর্গাপূজা পূজা এবং দশমী পূজা শেষে প্রতিমা বির্সজনের মধ্য দিয়ে ৮অক্টোবর উৎসবের সমাপ্তি ঘটবে। ইতিমধ্যে উপজেলার বিভিন্ন দূর্গা মন্দির ঘুরে দেখা যায়, শ্বারদীয় দূর্গাপূজার প্রস্ততি মূলক কাজ প্রায় শেষের দিকে।

আলাপচারিতায় নিজের সম্পর্কে ভবানীপুর গ্রামের ভবেশ মালাকার যা বললেন, ছোটবেলা থেকে কাদামাটি ও রঙতুলির সঙ্গে বেড়ে ওঠা ভবেশ মালাকারের জন্মস্থান নওগাঁ জেলার আত্রাই থানার ভবানীপুর গ্রামে। এখানে তিনি প্রতিমা তৈরি করে থাকেন। প্রতি বছর তিনি ২৫থেকে ৩০সেট প্রতিমা তৈরির অর্ডার নেন। এবার ও তার ব্যতিক্রম ঘটেনি। ইতোমধ্যে ৭ সেট প্রতিমা ডেলিভারি দিয়েছেন তিনি। প্রতি সেট প্রতিমা তৈরিতে ব্যয় হয় প্রায় ১৫ হাজার টাকা। তা আবার বিক্রি হয় ২৫ হাজার টাকায়।

রাণীনগর পূজা কমিটির সভাপতি চন্দন কুমার মোহন্ত বলেন, বর্তমান সরকার তাদের সার্বিক ভাবে সহযোগীতার পাশাপাশি আর্থিক ভাবেও সহযোগীতা করে আসছে। পূজার প্রস্তুতিও প্রায় শেষের দিকে। এবারের পূজায় তাদের আনন্দ প্রতি বছরের তুলনায় অনেক বেশি হবে বলেও মনে করেন তিনি।

আত্রাই উপজেলার মির্জাপুর-ভবানীপুর সার্বজনীন দূর্গা মন্দির কমিটির সভাপতি অনুপ কুমার দত্ত বাদল বলেন, আমাদের পুজার প্রস্তুতি প্রায় শেষের পথে। এবারের পুজায় আমরা বিগত দিনের তুলনায় অনেক আনন্দ করবো। আশাকরি অন্য বছরের তুলনায় এবারও পুজায় কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটবে না।

জেলা পূজা উদযাপন কমিটির সাধারন সম্পাদক বিভাষ চন্দ্র গোপাল বলেন এবার জেলায় ৭শ ৮৮টি পূজা মন্ডবে শারদীয় দূর্গা উৎসব অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। মা এবার ঘটকে চড়ে আসবেন আর ঘটকে চড়ে যাবেন। ইতিমধ্যেই আমরা আমাদের পক্ষ থেকে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। আমি আশাবাদি পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতায় এবারের দূর্গা উৎসব সুষ্ঠু, সুন্দর ও শান্তিপূর্ন পরিবেশে অনুষ্ঠিত হবে। কারণ ধর্ম যার যার কিন্তু উৎসব সবার।

জেলা পুলিশ সুপার প্রকৌশলী মো: আবদুল মান্নান মিয়া বিপিএম বলেন, শান্তিপূর্ন ভাবে হিন্দু ধর্মের প্রধান উৎসব শারদীয় দূর্গাপূজা অনুষ্ঠান সম্পন্ন করার লক্ষে আইন শৃংখলা বাহিনীর সজাগ দৃষ্টি রয়েছে। আইন শৃংখলা বাহিনীর পক্ষ থেকে তিনস্থরের নিরাপত্তার ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে এবং প্রতিটি থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ও সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) সকলকে বিভিন্ন মন্ডপের দায়িত্ব দিয়ে নিয়মিত টহল দেওয়ার ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। পাশাপাশি সবকটি পূজা মন্ডপ গোয়েন্দা নজরদারিতে থাকবে বলেও তিনি জানান। অন্যান্য বছরের চাইতে শান্তি ও নিরাপত্তার বিষয়ে এবার জোরালো প্রস্তুতি গ্রহন করা হয়েছে। আশাকরি কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটবে না এবারের পূজায়। তবে এ জন্য তিনি সকলের সহযোগীতা কামনা করেন।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ধর্ম বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৯২৯ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই