তারিখ : ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

সখীপুরে ইলু হত্যাকান্ডের তিনমাস ১০দিন

সখীপুরে ইলু হত্যাকান্ডের তিনমাস ১০দিন,সুষ্ঠু বিচার পাওয়া নিয়ে পরিবারের শঙ্কা
[ভালুকা ডট কম : ১০ অক্টোবর]
টাঙ্গাইলের সখীপুরে ইলিয়াছ ওরফে ইলু (৩৫) হত্যাকান্ডের তিন মাস ১০দিন পেরিয়ে গেলেও আজবধি হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত মামলার এজাহারভূক্ত একজন আসামিকেও গ্রেফতার করেনি পুলিশ। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সখীপুর থানার এসআই ওমর ফারুককে আসামি ধরতে বলা হলে তিনি নানা তালবাহানা করছেন বলে অভিযোগ করেছেন মামলার বাদী নিহতে বড় ভাই সাইফুল ইসলাম ও তার পরিবার।

ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আসামি পক্ষের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের টাকা নেওয়ারও অভিযোগ করেন তিনি। আসামিদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানিয়ে টাঙ্গাইল পুলিশ সুপারের কাছে মামলার বাদী মো. সাইফুল ইসলাম ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নালিশ করলে তিনি তার সামনেই সখীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে মামলার আসামিদের দ্রুত গ্রেফতার করে চূড়ান্ত চার্জশিট দেওয়ার নির্দেশ দেন। এতেও ওই হত্যাকা-ের এজাহারভূক্ত আসামিদের গ্রেফতার না করা ও চার্জশিট না দিয়ে নানা তালবাহানা করায় ইলিয়াছ ওরফে ইলু হত্যাকা-ের সুষ্ঠু ও ন্যায় বিচার পাওয়া নিয়ে নিহতের পরিবার শঙ্কায় রয়েছেন।

জানা যায়, উপজেলার দাড়িয়াপুর গ্রামের মৃত আবদুল কাদেরের ছেলে ইলিয়াছ ওরফে ইলু (৩৫) নিখোঁজের দুইদিন পর গত ৩০ জুন বিকেলে বাড়ি থেকে ৩০০গজ দূরে একটি জঙ্গলে অন্ঠকোষ গলিত গাছে রশি দিয়ে বাধা লাশ উদ্ধার করে সখীপুর থানা পুলিশ। পরের দিন ১ জুলাই নিহতের বড় ভাই সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে দাড়িয়াপুর সারপেচ গ্রামের মৃত হাতেম আলীর ছেলে মো. কাশেম মিয়া (৩৭), তার বড় ভাই মো. আতোয়ার রহমান (৪৬), লাল মিয়ার ছেলে সুজন মিয়া (৩৩), মৃত জলফু মিয়ার ছেলে আলাবক্স (২৮) এবং চান মাহমুদের ছেলে মংলা মিয়াকে আসামি করে সখীপুর থানা হত্যা মামলা করেন। ( মামলা নং-১, ধারা ৩০২/২০১/৩৪ পেনাল কোড)।

মামলার বাদী নিহতের বড় ভাই মো.সাইফুল ইসলাম কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন- আমার ভাই ইলু হত্যাকা-ের আসামিরা প্রকাশ্যে ঘুরাফেরা করলেও পুলিশ তাদেরকে গ্রেফতার করছেন না। আসামি ধরার তাগিদ দিলে উল্টো তিনি আমাদেরকেই আসামি ধরিয়ে দিতে বলছেন। চার্জশিট দিতেও নানা তালবাহানা করছেন। তিনি পুলিশের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের কাছে তার ভাই হত্যাকান্ডের জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি তাদের দৃষ্ঠান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই ওমর ফারুক তাঁর বিরুদ্ধে আনিত সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন- আসামিদের গ্রেফতারের সরবান্তক চেষ্টা চালানো হচ্ছে।সখীপুর থানার ওসি (তদন্ত) এএইচ এম লুৎফুল কবির বলেন- তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে ইলু হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারের  চেষ্টা চলছে। আশা করছি খুব দ্রুতই আসামিরা গ্রেফতার হবে।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অপরাধ জগত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২২৮ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই