তারিখ : ২০ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

গর্ভের সন্তান পুত্র না কন্যা হবে- এর দায় কার?

গর্ভের সন্তান পুত্র না কন্যা হবে- এর দায় কার?
[ভালুকা ডট কম : ১২ অক্টোবর]
‘পৃথিবীতে যা কিছু মহান সৃষ্টি চির কল্যাণকর, অর্ধেক তার করিয়াছে নারী অর্ধেক তার নর’ -নারী ও পুরুষকে এভাবেই মূল্যায়ন করেছেন আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম। ইসলাম ধর্মসহ সব ধর্মেই নারীকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। নারীরা হলেন মা'য়ের জাতি। যে মায়ের গর্ভ থেকে আমাদের মানব জাতির জন্ম সে মাকে  যদি অসম্মান করা  হয় তাহলে তা দূঃখজনক! কোন সমাজ ও রাষ্ট্র কতটা সভ্য বা উদার তা নির্ভর করে সেখানকার নারীদের পারিবারিক, সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় অবস্থানের উপর। অথচ আমাদের সমাজে নারী জীবনের শুরু অর্থাৎ কন্যা শিশুদের চরম অবজ্ঞা করা হয়।

প্রায়ই চেম্বারে অসহায় কোন না কোন নারী আসেন যাদের সন্তানদের ডাক্তার দেখাতে বা ওষুধ কেনার জন্য হাতে কোন টাকা থাকেনা। জিজ্ঞেস করলে কন্যা শিশুটির মা উত্তরে বলেন যে ''মেয়ে সন্তান হওয়ার জন্য স্বামী তাকে  ডিভোর্স দিয়েছে"। আবার কোন কোন বাবা কন্যা সন্তান জন্মের পরে সন্তান ও মায়ের আর কোন খুঁজ খবর নেয় না। একজন মা কতটা পথ পারি দেন, সন্তান জন্ম দিতে গিয়ে কতো রাত নির্ঘুম কাটে কতটা কষ্টের ভেতর দিয়ে যায়। গর্ভের সন্তান কেন মেয়ে হলো? এই প্রশ্নে মা'কেই সম্মুখীন হতে হয় সবচেয়ে বেশি। একজন মায়ের প্রতি অবিচার। কিছু পুরুষ আবার নতুন বিয়েতে এর সমাধান খোঁজেন।

চলুন দেখাযাক কন্যা শিশু জন্মের জন্য মা কতটুকু দায়ী?
আমাদের মানব শরীর বিলিয়ন বিলিয়ন আণুবীক্ষণিক কোষ দ্বারা তৈরি। এই কোষই হলো মানব শরীরের একক। একটা কোষে থাকে ৪৬টা ক্রোমোজোম যার ৪৪টা অটোজোম (দেহ তৈরিকারক), ২টা সেক্স ক্রোমোজোম (লিঙ্গ নির্ধারক)। নারীর ক্রেমোজোম ৪৬ XX এবং পুরুষের ৪৬ XY ক্রোমোজম। সন্তানের জন্ম হতে হলে নারী পুরুষ উভয়ের থেকে অর্ধেক অর্ধেক সংখ্যক ক্রোমোজোম আসবে অর্থাৎ- নারী পুরুষ যথাক্রমে ৪৬ XX( ২৩X+২৩X) ও ৪৬XY(২৩X+২৩Y)। এখানে পুরুষের ২৩X+ নারীর ২৩X= মিলে ৪৬XX অর্থাৎ সন্তানটি হবে মেয়ে। অন্যদিকে পুরুষের ২৩Y ও নারীর ২৩X মিলে ৪৬ XY অর্থাৎ সন্তানটি হবে ছেলে। এখানে মূলত পুরুষের Y ক্রোমোজোমই গর্ভের সন্তান পুত্র না কন্যা শিশু  হবে তার জন্য দায়ী। নারী এজন্য মোটেই দায়ী নয়।

এখানে ছেলে বা মেয়ে দুটো ক্ষেত্রেই মায়ের অংশের ক্রোমোজম একই অর্থাৎ ২৩X. সন্তান ছেলে না মেয়ে হবে এটা নির্ভর করে Y ক্রোমোজোমের ওপর, আর নারীদের Y ক্রোমোজোম নেই।  অথচ ছেলে কেন হলো না? শশুড়বাড়ি থেকে এই অবান্তর প্রশ্ন মাকেই সর্বদা শুনতে হয়, সামাজিক ও পারিবারিক ভাবে হেয় হতে হয়। সন্তান তো নিজের শরীরের অংশ চাই সে মেয়ে হোক আর ছেলেই হোক। মা-বাবার কাছে ছেলে মেয়ে উভয়ই সমান। আসুন সন্তান নিয়ে মাকে দোষারোপের সংস্কৃতি পরিহার করি।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

নারী ও শিশু বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২২৩ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই