তারিখ : ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় বিল্ডিং কোর্ড না মেনে বহুতল ভবন নির্মাণ

ভালুকায় বিল্ডিং কোর্ড না মেনে বহুতল ভবন নির্মাণের অভিযোগ,কাজ বন্ধে পুলিশের নির্দেশ
[ভালুকা ডট কম : ২০ নভেম্বর]
ভালুকা পৌরসভার ২নং ওয়ার্ডের ঢাকা-ময়মনসিংহ মহা সড়কের ভালুকা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এলজিইডি এর সাবেক নির্বাহী প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফার বিরুদ্ধে বিল্ডিং কোর্ড না মেনে ও আংশিক অন্যের জমির উপর বহুতল বিশিষ্ট ভবন নির্মাণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে ভালুকা মডেল থানা পুলিশ ইতিমধ্যে তাঁর বিল্ডিং এর নির্মাণ কাজ বন্ধের নির্দেশে দিয়েছে।

অভিযোগে জানাযায়, ভালুকা মৌজার বিরোধপূর্ণ সাবেক ৩৬০নং দাগে মদন ও কৃষ্ণ রবিদাসের কাছ থেকে প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফা সরকারী চাকুরিতে কর্মরত থাকা অবস্থায় কতক জমি ক্রয় করেন। ওই জমি দখল ও ভবন নির্মাণ করার সময় প্রকৌশলী গোলাম মোস্তফা হিজরাদেরকে লেলিয়ে দিয়ে লঙ্কাকান্ড ঘটিয়ে দখল করে ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করেন। ভবন নির্মাণ করার সময় তার ক্রয় কৃত জমির সীমানা ঘেঁষা লাহু মন্ডলের বিআরএস ১২২১নং দাগের ০.১২ অযুতাংশ ও ১২২২নং দাগে ১.১৪ অযুতাংশ মোট ১.২৬ অযুতাংশ জমির উপর জোরপূর্বক বহুতল বিশিষ্ট ভবন নির্মাণ শুরু করেন। নজরুল ইসলাম পৌর মেয়র বরাবর একটি অভিযোগ দিলে কর্তৃপক্ষ সার্ভেয়ার দিয়ে জমি পরিমাপ করে একটি প্রতিবেদন দেন। প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয় গোলাম মোস্তফা ১২২১নং দাগের ০.১২ অযুতাংশ ও ১২২২নং দাগে ১.১৪ অযুতাংশ মোট ১.২৬ অযুতাংশ  লাহু মন্ডলের জমিতে ভবন নির্মাণ করছেন।

এ সব ঘটনায় ভালুকা মডেল থানায় নজরুল ইসলাম বাদী হয়ে একটি অভিযোগ দিলে ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন সরেজমিনে গিয়ে ভবনের নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দিয়ে উভয় পক্ষ কাগজপত্র নিয়ে থানায় সবার পরামর্শ দেন। নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত কাজ বন্ধ করার নির্দেশ দিয়ে আসেন।

লাহু মন্ডলের ছেলে নজরুল ইসলাম জানান, আমাদের কাছ থেকে ০.৮৬অযুতাংশ জমি  গোলাম মোস্তফা ক্রয় করেন। আমরা তাঁকে সেই জমি সরেজমিনে বুঝিয়ে দেয়ার পরও ভবন নির্মাণ করার সময় ১.২৬অযুতাংশ জমির উপর জোরপূর্বক বহুতল বিশিষ্ট ভবন নির্মাণ শুরু করেন। নিচের দিকে ভবনে ছাদ যে ভাবে নির্মাণ করা হয় উপরের দিকে প্রতি তলায় ছাদ বাড়িয়ে বাড়িয়ে আমাদের জমির সীমানা অতিক্রম করে ফেলেছে। গোলাম মোস্তফা পৌরসভার বিল্ডিং কোর্ড না মেনে ভবন নির্মাণ করায় আমরা পৌরসভা ও মডেল থানায় পৃথক দুটি অভিযোগ দিয়েছি।

গোলাম মোস্তফা জানান, আমি বিল্ডিং কোর্ট ভেঙ্গে নির্মাণ কাজ করছি না। লাহু মন্ডেলের উত্তরাধিকারগণ যেহেতু আমার এখানে জমি পায় বলে দাবী করছে তারা কাগজপত্র নিয়ে বসুক।

ভালুকা মডেল থানার ওসি পরির্দশক মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন বলেন, আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছি যেহেতু পাশের জমির মালিক অভিযোগ দিয়েছেন সীমানা নির্ধারন হওয়া না পর্যন্ত পরিস্থিতি শান্ত রাখার জন্য ভবনের নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। #





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২২৮ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই