তারিখ : ১৩ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার

সংবাদ শিরোনাম

ভালুকার করোনা আপডেট

২৯ জুলাই ২০২০, বুধবার
আক্রান্ত
২৪ ঘন্টা মোট
০ জন ২৮০ জন
সুস্থ
২৪ ঘন্টা মোট
০ জন ২১৯ জন
মৃত্যু
২৪ ঘন্টা মোট
০ জন ৩ জন

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় ইউপি সদস্যের ওপর সন্ত্রাসী হামলা (আপডেট)

ভালুকায় মাদক ব্যবসায় বাঁধা দেয়ায় ইউপি সদস্যের ওপর সন্ত্রাসী হামলা
[ভালুকা ডট কম : ০৩ জুলাই]
ভালুকায় মাদক ব্যবসায় বাঁধা দেয়ার কারণে উপজেলার ডাকাতিয়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ইউসুফ আহাম্মেদ নিলয়(৩৫)এর ওপর সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার (২জুলাই)রাতে মল্লিকবাড়ি ইউনিয়নের ভায়াবহ নামক স্থানে।

অভিযোগ সূত্রে জানাযায়,ভালুকা সদর থেকে একটি কালো রং এর প্রাইভেটকার ও মোটর সাইকেল যোগে কয়েকজন যুবক উপজেলার ডাকাতিয়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের সোনাখালী গ্রামের তমির উদ্দিনের বাড়ির পাশের জংগলে মাদক সেবন ও কেনা-বেচা করতো। বেশ কয়েক দিন যাবৎ এভাবে কালো রংএর প্রাইভেটকার রহস্য জনক ভাবে রাতের আঁধারে দাড়িয়ে থাকতে দেখে বিষয়টি এলাকাবাসী স্থানীয় ইউপি সদস্য ইউসুফ আহাম্মেদ নিলয়কে জানালে তিনি গত মঙ্গলবার(৩০জুন)রাত ১০টায় এলাকাবাসী নিয়ে রহস্যময় কালো প্রাইভেট কারের কাছে গিয়ে কাউকে না পেয়ে দীর্ঘক্ষণ দাঁড়িয়ে থাকেন। এক সময় জংগল থেকে ৪যুবক ওই প্রাইভেটকারের কাছে আসলে এলাকাবাসী ক্ষোব্ধ হয়ে যুবকদের ওপর হামলা করার চেষ্টা করে। এরই জের ধরে ঘটনার রাতে ইউপি সদস্য ইউসুফ আহাম্মেদ নিলয় চাঁনপূর নিজ বাড়ি থেকে মোটর সাইকেল যোগে ভালুকা সদরের বাসায় যাওয়ার পথে ভালুকা-সখিপূর সড়কের ভায়াবহ নামক স্থানে পৌঁছতেই প্রয়াত ইউপি চেয়ারম্যান নূর উদ্দিনের ছেলে হাছান তার ব্যক্তিগত কালো প্রাইভেট কার দিয়ে নিলয়ের মোটর সাইকেল ব্যারিকেড দিলে এসময় আরও তিন মোটর সাইকেল দিয়ে আসা হাসানের সহযোগী মাদক কারবারি মিজান,রাকিব,রাহাতসহ ১০/১২জন দা,চাপাতি,লাঠি দিয়ে নিলয়ের ওপর হামলা করে গুরুতর আহত করে। এ সময় নিলয়ের ডাক চিৎকারে শোনে আশপাশে লোকজন এসে তাঁকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করে তাঁর অবস্থার অবনতি হলে নিলয়কে জরুরী ভিত্তিতে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল(মমেক) প্রেরণ করা হয়।

এলাকাবাসীর অভিযোগ,স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী মিজান ও রাকিবের কাছে ভালুকা থেকে কালো প্রাইভেটকার যোগে প্রয়াত ইউপি চেয়ারম্যান নূর উদ্দিনের ছেলে হাছান,মেদুয়ারী ইউপি সদস্য পানিভান্ডা গ্রামের মজিবুরের ছেলে রাহাতসহ আরও ৪/৫জন গিয়ে মাদক সেবন এবং ক্রয় করে নিয়ে আসতো। এ ছাড়াও সোনাখালি গ্রামের সোলাইমান ও মিন্টু তাদেরকে মাদক ব্যবসায় সহযোগীতা করতো।

এ ঘটনায় ইউপি সদস্য ইউসুফ আহাম্মেদ নিলয় বাদী হয়ে ১০/১২জনকে আসামী করে থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন। খবর পেয়ে ভালুকা মডেল থানার অফিসার (ওসি) মাইন উদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছেন।

ইউসুফ আহাম্মেদ নিলয় জানান, স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী মিজান,রাকিবের কাছে হাছান ও রাহাত কালো প্রাইভেটকার যোগে এসে মাদক বিক্রি করতো। মাদক বিক্রিতে আমি বাঁধা দেয়ায় হাছান,রাহাত মাদক কারবারি মিজান,মিন্টু, সোলাইলমান,রাকিবের নেতৃত্বে ১০/১২সন্ত্রাসী নিয়ে আমার ওপর এ নির্লজ্জ হামলা করে।

ডাকাতিয়া ইউপি চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম জানান,মাদক বেচা কেনায় বাঁধা দেয়ার কারনেই আমার পরিষদের সদস্যের ওপর এ হামলা হয়েছে।ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান,ইউপি সদস্যকে ময়মনসিংহে রেফার্ড করা হয়েছে। ঘটনাস্থল পরিদর্শণ করেছি। মামলা রুজু করার প্রস্তুতি চলছে।#




সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২৮৮ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই