তারিখ : ২৪ নভেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম


বিস্তারিত বিষয়

টানা বৃষ্টিতে রাজধানীর জলাবদ্ধতা চরমে

টানা বৃষ্টিতে রাজধানীর জলাবদ্ধতা চরমে
[ভালুকা ডট কম : ২১ জুলাই]
মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশেই ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাত আব্যাহত রয়েছে। সারাদেশে এরকম বৃষ্টিপাত আরো দু-দিন অব্যাহত থাকার পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। এদিকে,রাজধানীতে দু’দিন ধরে ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে ভোগান্তিতে পড়েছেন নগরবাসী। ইতোমধ্যেই রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে। অনেক স্থানে রাস্তা ও ফুটপাত তলিয়ে যাওয়ায় স্বাভাবিক চলাচল বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। ফলে বহু এলাকায় পথচারী ও কর্মজীবীদের চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে।

ঢাকা উত্তরের মেয়র আতিকুল ইসলাম আজ জলাবদ্ধ এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে বলেছেন, নগরীর খালগুলো ভরাট হয়ে যাওয়া এবং উন্নয়ন কাজের সমন্বয়হীনতার কারণে পানি নিষ্কাশনে সমস্যা হচ্ছে। সমাধানের উপায় খুঁজতে এক সপ্তাহের মধ্যে তিনি সংশ্লিষ্টদের নিয়ে  মিটিং করবেন।

এদিকে,সোমবার সকাল থেকে আজ মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত ঢাকায় বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে ৮৭ মিলিমিটার। সর্বশেষ রেকর্ড অনুযায়ী সকাল ৬ টা থেকে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত ঢাকায় ২৩ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। সারাদিন হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে।

দেশের মধ্যে উল্লেখযোগ্য বৃষ্টিপাত হয়েছে কক্সবাজারে ৫১ মিলিমিটার,কুমিল্লায় ৩১ মিলিমিটার, ময়মনসিংহে ৩৭ মিলিমিটার,নিকলীতে ৩৩ মিলিমিটার,ফরিদপুরে ২০ মিলিমিটার,সিলেটে ১৬ মিলিমিটার এবং ঈশ্বরদীতে১০ মি.মিটার। আবহাওয়া অফিস সূত্র জানায়, সোমবার সবচেয়ে বেশি বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে রাজশাহীর তাড়াশে ১২২ মিলিমিটার।এছাড়া ভারী বর্ষণের কারণে দেশের সকল সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। অন্যদিকে সমুদ্র উপকূলের সকল মাছ ধরার ট্রলার ও নৌকাকে উপকূলের কাছাকাছি সতর্ক অবস্থায় থাকতে বলা হয়েছে।

দেশের ১৪টি নদীর ২৪ পয়েন্টে এখনও বিপৎসীমার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও পূর্বাভাস কেন্দ্র জানিয়েছে,আগামী ৪৮ ঘণ্টায় ঢাকার আশপাশের নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকতে পারে।পদ্মায় পানি বৃদ্ধি ও তীব্র স্রোতে ফেরি চলাচল ব্যহত হচ্ছে। দু’দিকেই পারাপারের অপেক্ষায় দীর্ঘ হচ্ছে পণ্য ও যাত্রীবাহী ট্রাক-বাস-মাইক্রোবাসের সারি। দুর্ভোগে পড়েছেন  যাত্রী সাধারন ও পরিবহন শ্রমিকরা । নদীতীরবর্তী বিভিন্ন জেলায় দেখা দিয়েছে তীব্র ভাঙন। ঘরবাড়ি হারিয়েছেন অসংখ্য মানুষ।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অন্যান্য বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২৯৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই