তারিখ : ২১ অক্টোবর ২০২০, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম


বিস্তারিত বিষয়

গৌরীপুরে জলাবদ্ধতা থেকে ফসলি জমি রক্ষায় স্মারকলিপি

গৌরীপুরে জলাবদ্ধতার হাত থেকে ফসলি জমি রক্ষায় স্মারকলিপি প্রদান
[ভালুকা ডট কম : ২৪ সেপ্টেম্বর]
জলাবদ্ধতার হাত থেকে ফসলি জমি রক্ষায় বৃহস্পতিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকালে ময়মনসিংহের গৌরীপুর  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবর  স্মারকলিপি  প্রদান করেছে এলাকাবাসী।

জানা গেছে গৌরীপুর-রামপুর আঞ্চলিক  মহা সড়কের উপর উপজেলার বোকাইনগর ইউনিয়নের দাড়িয়াপুর-কৃষ্ণপুর গ্রামের সীমানাস্থলে অবস্থিত সরকারি  কালভার্টের নিচ দিয়ে বিভিন্ন মৌজার প্রায় ৬ শ একর ফসলি জমির অতিরিক্ত পানি বের হয়ে যায়। এক্ষেত্রে কতিপয় প্রভাবশালী ব্যক্তি শুধুমাত্র তার ব্যাক্তিগত সুবিধার্থে কালভার্টটির প্রবেশ মুখের প্রায় অর্ধেক একটু একটু করে মাটি দিয়ে ভরাট করে ফেলেছে। এ কারনে  অতিবৃষ্টিতে পানি প্রবাহ বাধা গ্রস্থ হয়ে জলাবদ্ধতার আশংকা দেখা দিয়েছে । বৃষ্টির প্রবনতা আরও বৃদ্ধি পেলে পানি প্রবাহ বাধাগ্রস্থ হয়ে চরম জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হবে। এ কারনে সমগ্র এলাকার ফসলি জমি সম্পূর্ণ পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ার  ভয়ে  আতংকিত হয়ে পড়েছে এলাকার কৃষকরা। তাই এলাকাবাসী  কালভার্টটির প্রবেশ মুখের মাটি অপসারণ করে পানি প্রবাহের গতি স্বাভাবিক করে জলাবদ্ধতার হাত থেকে তাদের ফসল রক্ষার জন্য গৌরীপুর  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হাসান মারুফ রাহাত বরাবরে স্মারক লিপি প্রদান করেছে।

স্মারক লিপি পাওয়ার পরেই তাৎক্ষণিক উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে কৃষকদের অভিযোগের সত্যতা সম্পর্কে নিশ্চিত হন। এ সময়  তিনি নতুন করে কেও যেন আর কালভার্টে মাটি ফেলে ভরাট বা পানি প্রবাহে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে না পারে সে ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন বলে কৃষকদের আশ্বস্থ করেছেন।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকার বাইরে বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২৯৫ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই