তারিখ : ২০ অক্টোবর ২০২০, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম


বিস্তারিত বিষয়

চিকিৎসা ব্যবস্থা ভালো বলেই মৃত্যুর হার কম-স্বাস্থ্যমন্ত্রী

চিকিৎসা ব্যবস্থা ভালো বলেই করোনায় মৃত্যুর হার কম-স্বাস্থ্যমন্ত্রী
[ভালুকা ডট কম : ২৭ সেপ্টেম্বর]
স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক আজ বলেছেন, করোনা ভাইরাসে আক্রান্তদের চিকিৎসায় শুরুতে যে সমস্যা ছিলো তা কাটিয়ে উঠেছে বাংলাদেশ। এছাড়া দেশের চিকিৎসা ব্যবস্থা ভালো বলে করোনায় মৃত্যুর হার কম।রোববার (২৭সেপ্টেম্বর) সকালে রাজধানীর একটি হোটেলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের চিকিৎসক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টায় বিশ্বের অন্যান্য দেশের তুলনায় করোনা আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা কম হয়েছে।

চিকিৎসকসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে রোগীদের চিকিৎসা সেবা চালিয়ে যাওয়ার জন্য পরামর্শ দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী।তিনি বলেন, করোনা মোকাবিলায় ঝিমিয়ে পড়লে চলবে না। সামনে আরও কাজ করতে হবে। শীতকালে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বৃদ্ধির সম্ভাবনা রয়েছে। এ সময়ে বিভিন্ন আচার-অনুষ্ঠান যেমন বিয়ে-শাদি, পিকনিক, খেলাধুলা ও ধর্মীয় অনুষ্ঠান বেশি হওয়ায় জনসমাগম হয়। এ কারণে আসন্ন শীত মৌসুমে এসব আচার-অনুষ্ঠান নিয়ন্ত্রণ ও সীমিত আকারে করতে হবে।

করোনার সংক্রমণ রোধে জনগণকে মাস্ক পরিধান, পরিবহনে যাতায়াতে সর্তকতা, সাবান বা স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করা ইত্যাদি স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা, করোনাভাইরাস শনাক্তে টেস্টের সংখ্যা আরও বৃদ্ধি করতে হবে বলেও জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, সময়মতো করোনার ভ্যাকসিন পাওয়া যাবে। বিভিন্ন দেশের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে এবং ভ্যাকসিন উৎপাদনে এগিয়ে আছে এমন অনেক দেশ আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবসময় পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন।

এ দিকে গত এক সপ্তাহে মহামারি করোনাভাইরাসে নমুনা পরীক্ষা, শনাক্তকৃত রোগী ও সুস্থ রোগীর সংখ্যা কমেছে। এ তিন ক্ষেত্রে সংখ্যা কমলেও বেড়েছে মৃত্যু। রোববার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে পাঠানো করোনা সংক্রান্ত নিয়মিত স্বাস্থ্য সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে  বলা হয়েছে, দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়ে আরও ৩২ জন মারা গেছেন। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল পাঁচ হাজার ১৬১ জনে।এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ১০৫টি পরীক্ষাগারে ১০ হাজার ২৬১টি নমুনা সংগ্রহ ও ১০ হাজার ৬৮৫টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। একই সময়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন এক হাজার ২৭৫ জন। মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়াল তিন লাখ ৫৯ হাজার ১৪৮ জনে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন এক হাজার ৭১৪ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থের সংখ্যা দাঁড়াল দুই লাখ ৭০ হাজার ৪৯১ জনে। ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার ১১ দশমিক ৯৩ শতাংশ এবং এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার ১৮ দশমিক ৮১ শতাংশ। রোগী শনাক্তের তুলনায় সুস্থতার হার ৭৫ দশমিক ৩১ এবং মৃত্যুর হার এক দশমিক ৪৪ শতাংশ।উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর ১৮ মার্চ প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অন্যান্য বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২৯৫ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই