তারিখ : ৩১ অক্টোবর ২০২০, শনিবার

সংবাদ শিরোনাম


বিস্তারিত বিষয়

আধুনিক ও সমৃদ্ধ শ্রীপুর পৌরসভা গড়ার অঙ্গীকার ফরিদের

উন্নত, আধুনিক ও সমৃদ্ধ শ্রীপুর পৌরসভা গড়ার অঙ্গীকার অ্যাডভোকেট হারুন অর রশীদ ফরিদের
[ভালুকা ডট কম : ১৪ অক্টোবর]
গাজীপুরের শ্রীপুর পৌরসভাকে আধুনিক, জবাবদিহিমূলক জনগণের পৌরসভা হিসেবে গড়ে তুলতে চান অ্যাডভোকেট হারুন অর রশীদ ফরিদ। যে কোনো উন্নয়নকাজে জনগণের সম্পৃক্তা নিশ্চিতকল্পে তিনি পৌরবাসীর সেবায় এগিয়ে আসতে চান। আসন্ন পৌর নির্বাচনের মাধ্যমে আওয়ামীলীগের মনোনয়নকে ধারণ করে তিনি এ সেবা দিতে চান।

আলহাজ্ব অ্যাডভোকেট হারুন অর রশীদ ফরিদ বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের একজন বিজ্ঞ আইনজীবি। তিনি গাজীপুরের শ্রীপুর পৌরসভার কেওয়া পশ্চিমখন্ড এলাকার আলহাজ্ব অঅব্দুল কাদির মাস্টার ও মরহুমা রোকেয়া বেগমের ছেলে। তাঁর জন্ম পহেলা জানুয়ারি ১৯৭২ সনে। তিনি ১৯৮৫ সালে শিক্ষা জীবনে অধ্যায়ণরত অবস্থায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে বাংলাদেশ ছাত্র লীগের কর্মকান্ডে অংশগ্রহণের মাধ্যমে ছাত্র রাজনীতিতে প্রবেশ করেন। ১৯৯০ সালে বাংলাদেশ ছাত্র লীগ মাওনা চৌরাস্তা আঞ্চলিক শাখার সাধারণ সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালনরত অবস্থায় ভাওয়াল বদরে আলম সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে ১৯৯২ সালে ছাত্র সংসদ নির্বাচনে সমাজ কল্যাণ সম্পাদক পদে সর্বোচচ ভোটে নির্বাচিত হয়, এবং শ্রীপুর উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের সদস্য পদ লাভ করেন । পরবর্তীতে শ্রীপুর উপজেলা শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন এবং শ্রীপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের পর পর দুই বার সদস্য হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন । ধানমন্ডি “ল” কলেজ থেকে এলএল,বি ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ থেকে এম এ পাশ করে আইন পেশায় সম্পৃক্ত হয়ে বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী  হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন ।

সার্বিক উন্নয়ন কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত থেকে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের গুরুত্ত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। তিনি পিয়ার আলী বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ পরিচালনা পরিষদের সদস্য ছিলেন। শিক্ষার গুণগত ধারাবাহিকতা অক্ষুন্ন রাখার স্বার্থে ঐতিহ্যবাহী মাওনা বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করে এলাকার শিক্ষার মানোন্নয়ন অব্যাহত রেখে চলেছেন। এছাড়াও এলাকার রাস্তা ঘাট, মসজিদ, মাদরাসা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও অন্যান্য স্বেচ্ছসেবী সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত থেকে সামাজিক কর্মকান্ড অব্যাহত রেখে চলেছেন। এ সকল উন্নয়ন কর্মকান্ডে এলাকার সাধারণ জনগণের আস্থার প্রতীক হিসেবে শ্রীপুর পৌর উন্নয়নে জনসম্পৃক্তা নিশ্চিত করতে চান।

তাঁর বক্তব্যে জানা গেছে, ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় এসে আওয়ামীলীগকে নিশ্চিহ্ন করার ষড়যন্ত্র হিসাবে তৎকালীন বিরোধী দলীয় নেত্রী, বঙ্গবন্ধুর কন্যা, আওয়ামীলীগের সভানেত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা সহ  জাতীয় নেতাদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলার বিরূদ্ধে এবং ১/১১এর সেনা সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার বর্তমান প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী  শেখ হাসিনাকে কারারুদ্ধ করার পর যখন অনেক  সিনিয়র আইনজীবী ও নেতৃবৃন্দ জীবন শংকায় শংকিত হয়ে নিরাপদ দুরত্ব বজায় রেখে চলতেন তখন সোচ্চার হয়ে সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার রফিকুল হক, ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ, এডভোকেট সাহারা খাতুন, অ্যাডভোকেট মোঃ রহমত আলী, আব্দুল মতিন খসরু ও ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নুর তাপসের  জুনিয়র আইনজীবী হিসেবে আইনি লড়াই চালিয়ে যান।

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের বিশেষ বাহীনির হুমকি ধমকি প্রাণ শংকা উপেক্ষা করে নেত্রীর মুক্তি নিশ্চিত করার জন্য অন্যান্য বিজ্ঞ আইনজীবীদের সাথে শেষ পর্যন্ত সম্পৃক্ত থাকেন। মহান মুক্তিযুদ্ধে  শহীদের সংখ্যা নিয়ে ষড়যন্ত্র কারী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রাষ্ট্র দ্রোহী মামলার অন্যতম সাক্ষী হিসেবে ভূমিকা পালন করেন।

মাতৃ ধারামতে অ্যাডভোকেট হারুন অর রশীদ ফরিদের নানা কেওয়া আকন্দ বাড়ী গ্রামের আলমগীর বাদশাহ আকন্দ মহান মুক্তিযুদ্ধে শহীদ হন। মামা নজরুল ইসলাম আকন্দ এবং ফুফা আহাদ আলী মৃধা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহ্বানে মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে সশস্ত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে বিশেষ অবদান রাখেন।

ছাত্র রাজনীতি শেষে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক ও কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি’র হাত ধরে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সহ-সম্পাদক হিসেবে রাজনীতিতে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করেন। এমন বর্ণাঢ্য সামাজিক ও রাজনৈতিক জীবন বিবেচনায় সুধী মহল জনকল্যাণকর যে কোন দায়িত্বে যোগ্য মনে করে জনসম্পৃক্ততায় শ্রীপুর পৌরসভার উন্নয়ন কর্মকান্ডে মেয়র হিসেবে অ্যাডভোকেট হারুন অর রশীদ ফরিদ নিজেকে যুক্ত করতে চান।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

পাঠক মতামত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২৯৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই