তারিখ : ২৪ নভেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম


বিস্তারিত বিষয়

আদিবাসী নারীদের সার্বিক পরিস্থিতি বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন

সমতলের আদিবাসী নারীদের সার্বিক মানবাধিকার পরিস্থিতি বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন
[ভালুকা ডট কম : ২৯ অক্টোবর]
সমতলের উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের রংপুর-রাজশাহী বিভাগে গত জানুয়ারি থেকে এখন পর্যন্ত কমপক্ষে ১৫ জন আদিবাসী নারী ও কন্যা শিশু ধর্ষণ, ধর্ষণের পরে হত্যা, শারীরিক ও যৌন নির্যাতনসহ নানাধরনের সহিংসতার শিকার হয়েছে। আদিবাসী নারী ও কন্যা শিশুরা প্রান্তিক সংখ্যালঘু হওয়ার কারণে এবং আদিবাসীদের ভূমি থেকে উচ্ছেদের অংশ হিসেবে তারা এসব নির্যাতনের শিকার হয়েছে। আদিবাসী নারী ও শিশু কল্যাণ সংস্থা এবং বাংলাদেশ আদিবাসী নারী নেটওয়ার্ক এর যৌথ আয়োজনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

সমতলের আদিবাসী নারীদের সার্বিক মানবাধিকার পরিস্থিতি বিষয়ে এই সংবাদ সম্মেলন আজ সকাল ১০.৩০ মিনিটে জয়পুরহাট জেলার পাঁচবিবি উপজেলার মহিপুর সাঁওতাল গ্রামে অবস্থিত এএনএসকেএস হলরূমে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে শোনান আদিবাসী নারী ও শিশু কল্যাণ সংস্থার প্রকল্প সমন্বয়ক সোহাগিনী হাঁসদা। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন সংস্থার সহ সভাপতি অঞ্জলী মুর্মু, সংস্থার সমন্বয়ক ও জাতীয় আদিবাসী পরিষদের কেন্দ্রীয় তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক মানিক সরেনসহ পাঁচবিবি উপজেলা আদিবাসী নারী মানবাধিকার সুরক্ষা কর্মী দলের ১৫জন নারী সদস্য।

সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, বিগত কয়েকমাসে সারাদেশে নারীদের প্রতি চরমভাবে সহিংসতা, নিপীড়ণ ও নির্যাতনের বেশ কয়েকটি ঘটনা সংঘটিত হয়েছে। বাঙ্গালি নারীদের পাশাপাশি সমতলের আদিবাসী নারীদের প্রতি সংহিসতার ঘটনাও সমানতালে ঘটে চলেছে। এখানে নারীদের প্রতি সহিংসতার ঘটনায় বা নারীদের মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনায় কে আদিবাসী নাকি বাঙ্গালি সেটার চাইতেও যেটা আমাদের ভাবিয়ে তুলেছে সেটা হলো এদেশে এখনো নারীদের নিরাপত্তা সেইভাবে নিশ্চিত করা সম্ভব হয়নি। বিশেষত সমাজের মধ্যে যেসব নারীরা অর্থনৈতিক, রাজনৈতিকভাবে প্রান্তিক তাদের প্রতি সহিংসতার ঘটনাগুলো যেন বেশি ঘটেছে। এক্ষেত্রে অপরাধীরা বারবার আইনের ফাঁকফোকর দিয়ে বের হয়ে আসতে সক্ষম হয়েছে যা পরবর্তীতে সেই অপরাধীকে আবারো নতুন করে কোন নারীকে সহিংসতার লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত করেছে। এইভাবে একই অপরাধীর দ্বারা বারবার অপরাধ সংঘঠিত হবার একধরনের সংস্কৃতি গড়ে উঠেছে।

রংপুর জেলার বদরগঞ্জের আদিবাসী শিক্ষার্থী রুখিয়া রাউৎকে ধর্ষণের পর হত্যা, মধুপুরগড় অঞ্চলের পেগামারী গ্রামের বাসন্তী রেমার ৪০ শতক জায়গার পুরো কলাবাগান স্থানীয় বনবিভাগ বিনা নোটিশে কেটে ফেলা, রাজশাহীর তানোর উপজেলার মুন্ডুমালা মাহালীপাড়া এলাকায় "সাধুজন মেরী ভিয়ান্নী গির্জায়" তিনদিন ধরে আটকে রেখে ১৫ বছর বয়সী এক আদিবাসী কিশোরীকে সেই গীর্জার ফাদার প্রদীপ গ্রেগরী কর্র্তৃক ধর্ষণের ঘটনা, তারিখে রাজশাহীর তানোরে কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় এক আদিবাসী নারীকে চকনাকা শিমুলতলা নিচ পাড়া গ্রামের সাইফুদ্দীনের ছেলে শহিদুল ইসলাম কর্তৃক নির্যাতনের অভিযোগ, রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে আদিবাসী স্কুলছাত্রীকে বলিয়াডাং গ্রামের আলম হোসেনের ছেলে আল আমিন জড়িয়ে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা, নওগাঁ জেলার মহাদেবপুর উপজেলার সফাপুর দক্ষিণপাড়া গ্রামের এক আদিবাসী নারীকে একই গ্রামের মালুপাড়ার হবিবরের ছেলে লিটন হোসেন কর্তৃক ধর্ষণের চেষ্টা, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার নাচোলে মাছ ব্যবসায়ী শাহাবান আলীর নেতৃত্বে একজন সাঁওতাল নারীকে মারধর, টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার লুট, দিনাজপুর জেলার নবাবগঞ্জে আদিবাসী কলেজ ছাত্রীকে প্রেমের ফাঁদের ফেলে  উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়নের আজমপুর কাজিপাড়া গ্রামের পতন চন্দ্র রায়ের ছেলে তাপস চন্দ্র রায় (২০) কর্তৃক ধর্ষণ, দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে বুদ্ধিপ্রতিবন্ধী সাঁওতাল কিশোরীকে উপজেলার চাঁনের ডাঙ্গা গ্রামের শামিম হোসেন একা পেয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ, নওগাঁ জেলার পত্নীতলায় আল-আমিন মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলীম আল রাজী বাবু এক আদিবাসী নারীকে ২০১৯ সাল থেকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে ধর্ষণ,  রাজশাহীর গোদাগাড়ীর গোগ্রাম ইউনিয়নের ইটাহারী গ্রামে আদিবাসী নারীর ঘরে প্রবেশ করে প্রতিবেশি জহুরল ইসলাম (৪৫) কর্তৃক ধর্ষনের চেষ্টা, দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুরে সাঁওতাল কিশোরীকে বাড়িতে একা পেয়ে উপজেলার চন্ডীপুর ইউনিয়নের কালিকাবাড়ী ডাঙ্গা পাড়ার হাসিবুর রহমান ধর্ষণের চেষ্টা, নওগাঁ জেলার মহাদেবপুর উপজেলার এনায়েতপুর বাজারের খমেজ উদ্দিন এক আদিবাসী কিশোরীকে জোরপূর্বক বাজারের দোকানঘরে তুলে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা ইত্যাদি ঘটনার কথা তুলে ধরা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে আরো বলা হয়, উপরোক্ত ঘটনাসমূহের বাইরেও অনেক ঘটনা লোকচক্ষুর অন্তরালে অজানায় থেকে যাচ্ছে। আদিবাসী নারীরা একেতো আদিবাসী হিসেবে বেশিমাত্রায় প্রন্তিকতা ও বৈষম্যের শিকার তারমধ্যে আদিবাসী পরিচয়ের কারণে তারা আরো বেশি বৈষম্য ও সহিংসতার শিকার হচ্ছে। কেননা আদিবাসী নারী ও কন্যা শিশুর প্রতি সহিংসতার ঘটনায় অপরাধীরা মনে করে আদিবাসী সমাজ তাদের বিরুদ্ধে কি আর করতে পারবে। এভাবে মূলত বিচারহীনতা সংস্কৃতির কারণে আদিবাসী নারী ও কন্যা শিশুদের প্রতি ধর্ষণ, হত্যা, শারীরিক নির্যাতন, যৌন হয়রানির মতো সহিংসতার ঘটনা ঘটছে। দুঃখের বিষয় হলো, এসব বিষয়ে আমরা প্রশাসনের পক্ষ্য থেকে দ্রুত কোন ইতিবাচক পদক্ষেপ লক্ষ্য করিনা কিছু ব্যতিক্রম বাদে।

আদিবাসী নারী ও কন্যা শিশুদের প্রতি এসমস্ত সহিংস ঘটনার জন্য রাষ্ট্র, সরকার, বিচার বিভাগ, প্রশাসন আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী ও নিরাপত্তা বাহিনী কেউ এর দায়-দায়িত্ব এড়াতে পারে না। রাষ্ট্র , সরকার বা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকেই ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে হবে। সমতলের আদিবাসীদের বেঁচে থাকার প্রধান অবলম্বন ভূমি থেকে উচ্ছেদের জন্য অনেকসময় আদিবাসী নারী ও কন্যা শিশুদের ভূমিদস্যুরা টার্গেট করে থাকে। এজন্য সমতলের আদিবাসীদের ভূমি সুরক্ষায় বর্তমান সরকারের নেতৃত্বাধীন আওয়ামীলীগ এর নির্বাচনী ইশতেহারে বর্ণিত অঙ্গীকারের পূর্ন বাস্তবায়নের দাবি জানানো হয়। পাশাপাশি আদিবাসী নারী ও কন্যা শিশুর প্রতি সহিংসতা রোধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ প্রশাসনকেই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করার আহ্বান জানানো হয়।

সংবাদ সম্মেলন থেকে যেসব দাবি তুলে ধরা হয় সেগুলো হলো: সাম্প্রতিক সময়ে সংঘটিত আদিবাসী নারীর উপর নিপীড়ণ, নির্যাতন, ধর্ষণ ও সহিংস সকল ঘটনায় জড়িত দোষীদের সর্বোচ্চ শাস্তি প্রদান করতে হবে; ঘটনার শিকার আদিবাসী পরিবারগুলোকে পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণসহ নিরাপত্তা প্রদান করতে হবে; আদিবাসী নারীসহ নারীর প্রতি সকল ধরনের নির্যাতন বন্ধে প্রশাসনের কার্যকর ভূমিকা রাখতে হবে; সমতলের আদিবাসীদের ভূমি রক্ষায় স্বাধীন ভূমি কমিশন গঠন করতে হবে এবং সমতলের আদিবাসী নারী-পুরুষদের জীবনমান উন্নয়নে পৃথক বাজেট বরাদ্দ ও পৃথক মন্ত্রণালয় গঠন করতে হবে।

বার্তা প্রেরক
সোহাগিনী হাঁসদা
প্রকল্প সমন্বয়ক
আদিবাসী নারী ও শিশু কল্যাণ সংস্থা



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

মিডিয়া বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২৯৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই