তারিখ : ১৩ এপ্রিল ২০২১, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

রাত পোহালেই নওগাঁর দুটি পৌরসভায় ভোট

রাত পোহালেই নওগাঁর দুটি পৌরসভায় ভোট,কারা পড়ছেন জয়ের মালা
[ভালুকা ডট কম : ২৯ জানুয়ারী]
আগামীকাল শনিবার (৩০জানুয়ারী) নওগাঁ দুটি পৌর সভা নির্বাচনে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ইতোমধ্যে সব ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। তৃতীয় ধাপে ব্যালটের মাধ্যমে নওগাঁ ও ধামইরহাট এই দুটি পৌরসভার ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

উল্লেখ্য ধামইরহাট পৌর সভায় দীর্ঘ প্রায় ১৫বছর পর ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তাই এই পৌর সভার ভোটাররা অধির আগ্রহে অপেক্ষায় রয়েছে শনিবার শান্তিপূর্ন ও উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দিতে।

ইতিমধ্যেই ভোটাররা যেন নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে উৎসাহ উদ্দীপনার সঙ্গে ভোট দিতে পারে সেজন্য নির্বাচন অফিস সকল ধরনের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। এর ফলে ভোটারদের মাঝে উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে আবার অনেকে ভাবছেন সঠিক ভাবে ভোট দিতে পারবেন কিনা। তবে ভোটাররা বলছেন তারা যোগ্য প্রার্থীকেই ভোট দিবেন। অনেকে ভাবছেন পৌর সভার উন্নয়নের জন্য মেয়র পদে পরিবর্তন হোক। আবার অনেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পৌরসভার উন্নয়নের জন্য পরিবর্তন হোক এমনটায় প্রত্যাশা করছেন। তবে সবার একটাই দাবী পৌরসভার যে উন্নয়ন করবে, তাকেই ভোট দিবেন। ফলে কে পড়বে জয়ের মালা, কে হাসবে বিজয়ের হাসি তা ভোট গনণার পরই নির্ধারণ হবে।

১৯৬৩ সালের ৭ডিসেম্বর নওগাঁ পৌরসভা প্রতিষ্ঠিত হয়। পরে ১৯৮৯সালে নওগাঁ পৌরসভাটি প্রথম শ্রেণির পৌরসভা হিসাবে উন্নীত হয়। বর্তমানে ৯টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত এ পৌরসভার মোট ভোটার সংখ্যা ১লাখ ১৬ হাজার ৯১ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৫৭ হাজার ১৭৫ জন এবং নারী ভোটার ৫৮ হাজার ৯১৬ জন। উৎসব মুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ৪১টি কেন্দ্রে ৩৩২টি ভোট কক্ষে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

এই নির্বাচনে মেয়র পদে ৫জন ও কাউন্সিলর পদে ৫৭জন এবং সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর পদে ১৯জন প্রার্থীসহ মোট ৮১জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন। মেয়র পদে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী নৌকা প্রতীকে নির্বাচন করছেন জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি নির্মল কৃষ্ণ সাহা, বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ও বর্তমান মেয়র আলহাজ্ব নজমুল হক সনি, স্বতন্ত্র প্রার্থী চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ড্রাষ্ট্রির সভাপতি ইকবাল শাহরিয়ার রাসেল, জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী ইফতেখারুল ইসলাম বকুল ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মনোনীত প্রার্থী আতিকুর রহমান।

অপরদিকে নওগাঁর ধামইরহাট পৌরসভা নির্বাচনে অংশ গ্রহণকারী প্রার্থীদের মধ্যে ২২জন মাধ্যমিকের গন্ডি পেরুতে পারেননি। নির্বাচনে মেয়র, সংরক্ষিত কাউন্সিলর ও সাধারণ কাউন্সিলর পদে মোট ৫৬জন লড়ছেন। তবে শিক্ষাগত যোগ্যতা না থাকলেও নির্বাচনী লড়াইয়ে পিছিয়ে নেই ওই সব প্রার্থী। মানুষের সেবা প্রদান তাদের মূল লক্ষ্য এ ভেবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতা করছেন।

তৃতীয় দফায় দীর্ঘ প্রায় ১৫বছর পর ধামইরহাট পৌরসভার নির্বাচন ব্যালট পেপারের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনে মেয়র পদে ৩জন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৬জন এবং সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১৭ জন নারী প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। নির্বাচন কমিশনে প্রার্থীদের দাখিলকৃত হলফ নামায় দেখা যায় মেয়র পদে তিন জন প্রার্থীই শিক্ষিত। এদের মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থী নারিকেল গাছ মার্কা প্রার্থী আইয়ুব হোসেন সর্বোচ্চ ডিগ্রী বি,এ (সম্মান) এম,এ এবং এলএলবি পাশ। নৌকার প্রার্থী বর্তমান মেয়র আমিনুর রহমান বি,এ পাশ। এছাড়া ধানের শীষের প্রার্থী সাবেক পৌর প্রশাসক মাহবুবুর রহমান চৌধুরী চপল এইচএসসি পাশ। সংরক্ষিত ৩টি ওয়ার্ডের ১৭ নারী প্রার্থীর মধ্যে এইচএসসি পাশ ২জন,এসএসসি পাশ ৩ জন,১০ম শ্রেণী পাশ ১জন,১০ জন ৮ম শ্রেণী পাশ এবং একজন প্রার্থী নিরক্ষর। অপর দিকে ৯টি সাধারণ ওয়ার্ডে ৩৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদের মধ্যে এম,এ পাশ ৬জন,বিএ পাশ ৪জন,এইচএসসি পাশ ৫জন,এসএসসি পাশ ১০জন, ৮ম শ্রেণী পাশ ৯ জন,৭ম শ্রেণী পাশ ১জন এবং একজন প্রার্থী অক্ষর জ্ঞান সম্পন্ন। প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগ্যতা যাই হোক না কেন সকলে সমানতালে নির্বাচনী লড়াইয়ে রয়েছেন। নিরক্ষর ও অপেক্ষাকৃত কম শিক্ষিত প্রার্থীরা বলেন,মানুষের সেবা প্রদানই তাদের মূল কথা। ভালোবাসা ও নিরলস শ্রম দিয়ে মানুষের সেবা প্রদান করার জন্য তারা প্রার্থী হয়েছেন। এক্ষেত্রে শিক্ষাগত যোগ্যতার তাদের বাধা হয়ে দাঁড়াবে না।

ধামইরহাট পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডে ৩৮টি বুথে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিটি কেন্দ্রে পর্যাপ্ত আ্ইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য নিয়োগ করা হবে। নির্বাচন সুষ্টুভাবে অনুষ্ঠানের লক্ষে ৩৮টি বুথের জন্য ৩৮জন প্রিজাইডিং অফিসার এবং ৭৬ জন পোলিং অফিসার নিয়োগ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে তাদের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন হয়েছে। নির্বাচনে ১২ হাজার ৬৪০ জন মোট ভোটার রয়েছে। এর মধ্যে পুরুষ ৬ হাজার ২২৭ এবং নারী ৬ হাজার ৪১৩ জন ভোটার রয়েছে।

নির্বাচনের সময় যতই ঘনিয়ে আসছে ততই যেন প্রার্থী ও সমর্থকদের ব্যস্ততা বেড়েই চলেছে। প্রচন্ড শীত আর ঘন কুয়াশাকে উপেক্ষা করেই মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীরা মাঠ চষে বেড়িয়েছেন। দিনরাত ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট প্রার্থনা করেছেন এবং দিয়েছেন নানা ধরনের উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি। ভোট কেন্দ্র ও ভোটারদের নিরাপত্তার জন্য পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবি এবং আনছার বাহিনী নিয়োজিত থাকবে। প্রতিটি ওয়ার্ডে এক জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করবেন।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও জেলা রিটার্নিং অফিসার মাহমুদ হাসান জানান, ৩০জানুয়ারি তৃতীয় ধাপে নওগাঁ  ও ধামইরহাট পৌরসভার ব্যালটের মাধ্যমে ভোট সম্পন্ন করতে সকল প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। নির্বাচন পরিবেশ সুষ্ঠ  ও শান্তিপূর্ন রাখতে নির্বাচনের দিনে ভোট কেন্দ্রে আইনশৃংখলার পাশাপাশি মোবাইল টিম, স্ট্রাইকিং ফোর্স, বিজিবি, র‌্যাব, নির্বার্হী ম্যাজিষ্ট্রেট নিয়োজিত থাকবে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

নির্বাচন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩০৯ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই