তারিখ : ৩০ জুলাই ২০২১, শুক্রবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

কালকিনিতে বহুমুখী উন্নয়ন সোসাইটির নামে প্রতারণা

প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনায় মানববন্ধন
কালকিনিতে বহুমুখী উন্নয়ন সোসাইটির নামে প্রতারণা
[ভালুকা ডট কম : ১৫ জুন]
মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার ডাসার থানার নবগ্রাম ইউনিয়নের বহুমুখী উন্নয়ন সোসাইটির নামে প্রায় কোটি টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে গিলবার্ড বিনিময় সরকারের বিরুদ্ধে। উপরন্তু বিনিময় সরকার সমিতির জায়গা-জমি বিক্রি করে ও সমিতির টাকা নিয়ে দেশ ত্যাগের উদ্যোগ নিয়েছে বলে একাধিক সূত্রে জানাগেছে। ফলে ক্ষুব্ধ সদস্যরা মঙ্গলবার সকালে কালকিনি উপজেলার নবগ্রাম এলাকায় প্রধনামন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করে সঞ্চয়ের টাকা ফেরতের দাবিতে মানববন্ধন করেন।

জানা যায়, নবগ্রামের গিলবার্ড বিনিময় সরকার প্রায় ৩১ বছর আগে নিজ গ্রামে ‘বহুমুখী উন্নয়ন সোসাইটি (বিইউএস) নামে একটি সমিতি প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি এলাকার ২০টি গ্রামে ৫টি শাখা কার্যালয় স্থাপন করে বিভিন্ন গ্রুপের নামে সদস্য সংগ্রহ করেন। বিইউএস তাদের কর্ম এলাকার দরিদ্র জনগোষ্ঠীকে পুনর্বাসনসহ বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধার প্রলোভন দিয়ে অন্তত তিন হাজার সদস্যের প্রায় কোটি টাকা সঞ্চয় আমানত সংগ্রহ করে তা আত্মসাৎ করেন। এছাড়াও বিভিন্ন দাতা সংস্থা ও সরকার থেকে সমিতির নামে ভুয়া প্রকল্প দেখিয়ে বিপুল পরিমাণ অর্থ আত্মসাৎ করেছেন। এসব অর্থ দিয়ে গিলবার্ড বিনিময় সরকার তার দুই ছেলেকে লন্ডন পাঠিয়েছেন বলে সমিতির সদস্যরা অভিযোগ করেন। এর আগে সমিতির সদস্যরা তাদের জমাকৃত অর্থ ফেরৎ চাইলে বিনিময় সরকার টাকা দেয়ার কথা বলে সদস্যদের পাসবই জমা নেন। এরপর বছরের পর বছর টাকা দিতে টালবাহানা করায় গত ২০১৫ সালে ১ জুলাই সমিতির সদস্যরা মাদারীপুর জেলা প্রশাসক বরাবরে অভিযোগ করেন। এরপর বিনিময় সরকার কিছু প্রতিবাদী সদস্যকে টাকা ফেরত দিলেও এখনো হাজার হাজার সদস্য সঞ্চয় ফেরত পাননি।

বনানী বিশ্বাস নামে এক সদস্য বলেন, আমি পুরানো সদস্য কিন্ত বার বার আমাকে সঞ্চয়ের টাকা দিবে বলে ঘুরাচ্ছে। আমি প্রতারণার বিচার চাই। সমিতির অন্যান্য সদস্যরা বলেন- আমরা প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করছি। আমাদের সঞ্চয়ের টাকা ফেরত না দিয়ে বিনিময় সরকার যেন বিদেশে না যেতে পারে সেই দাবি জানাচ্ছি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নবগ্রাম ইউনিয়ন পরিষদের এক সদস্য বলেন, নবগ্রাম বহুমুখী উন্নয়ন সোসাইটির নামে কয়েক হাজার দরিদ্র মানুষকে প্রতারণা করা হয়েছে। এর শেষ কোথায় কে জানে ?

ঐ সোসাইটির পরিচালক গিলবার্ড বিনিময় সরকার বলেন, আমি কোন প্রতারণা করি নাই, এলাকার কিছু মানুষ আছে যারা আমার ভাল চায় না, তারাই আমার বিরুদ্ধে এসব করাচ্ছে।

কালকিনি উপজেলা কর্মকর্তা মো. মেহেদী হাসান বলেন, তিনি অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকার বাইরে বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩১৩ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই