তারিখ : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

প্রকাশতি সংবাদরে প্রতবিাদ জানিয়েছেনে ইয়াসনি মজবিুর

প্রকাশতি সংবাদরে তীব্র প্রতবিাদ জানিয়েছেনে ইয়াসনি মজবিুর
[ভালুকা ডট কম : ১১ আগস্ট]
কালিয়াকর সম্পত্তি রক্ষায় সাবেক চেয়ারম্যান এর বিরুদ্ধে  সংবাদ সম্মেলনে শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। আমার বিরুদ্ধে প্রকাশিত বানোয়াট উদ্ভট মনগড়া মিথ্যা সংবাদ প্রকাশের তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

আমার ইউনিয়নের জনগণ তাদের শতকরা ৯৬ পার্সেন্ট ভোট দিয়ে আমাকে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করে ছিল। সামনে আবারও ইউপি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। এলাকার সাধারন জনগন আমাকে তাদের মন থেকে ভালোবাসে এবং আগামী নির্বাচনেও জনগণ তাদের ভালাবাসার প্রমাণ দিয়ে আমাকে চেয়ারম্যান নির্বাচিত করব ইনশালস্নাহ। আমার প্রতি জনগণর ভালাবাসা দেখে আমার প্রতিপক্ষসহ নুরম্নদ্দিন মিয়া আমার প্রতি ঈর্ষা্িবত হয় কিভিন বানায়াট সংবাদ ছাপিয় আমার মানসম্মান ক্ষুন করার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছে। নুরম্নদ্দিন সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন আমাদের পৈতৃক ৪৬শতাংশ ও আমাদর মার্কেট ভাঙচুর করে আমাদের নামে থানায় অভিযাগ দিয়ে হয়রানি করছে।

আমার বক্তব্য হলো এসএ,আর,এস রেকর্ডীয় প্রজা হালিমুনেছা ২৬-০৫-৭৫ইং তারিখ ৫৮১০ নং দলিল তার তিন পুত্র (১) কালু মিয়া (২) জালাল উদ্দিন (৩) আবুল হাসনর বরাবর নালিশি এসএ / আরএস ৭৩/৮২ নম্বর দাগ ১ একর ১৮ শতাংশ ভূমি দান করেন। পর রেকর্ডীয় প্রজা হালিমুনেসার পুত্র জালাল উদ্দিনর দুই পুত্র (১) মোস্ত্মফা (২) জুলহাস উদ্দিন ও (৩) স্ত্রী কয়ছের ভানু ওরফে ময়ছর ভানুক ওয়ারিশ বিদ্যমান রেখ মত্যুবরণ করেন। এরপর হালিমনেছার ওয়ারিশ (১) আবুল হাসন ও(২) জালাল উদ্দিন বর্ণিত ৫৮১০ দলিল মূলে ভোগ দখলে থাকা অবস্ায় জালাল উদ্দিনর দুই পুত্র ও এক স্ত্রী এবং অপর ক্রেতা আবুল হাসন যথাভাবে ৩০-০৭-৭৫ইং তারিখ ৭১৩৪ আমমোক্তার নামা দলিলের নালিশি ভুমির  জন্য আমাক আমমোক্তার নিযুক্ত করেন এবং জমি ক্রয় করার পর থেকেই ওই জমিতে আমার নাম সাইনবোর্ড ও বন্যা টেইলার্স নামের আমার একটি দোকান ভাড়া ঘর ভারা দেওয়া   আছে। উলস্নখ্য ২৬-০৫-৭৫ইং তারিখ ৫৮১০ হেবানামা দলিল এর মৌজা ও হাল খতিয়ান ভুল হওয়ায় উক্ত হেবানামা দলিলের গ্রহীতাগন বর্ণিত ৫৮১০ দলিলের মৌজার নাম ও খতিয়ান নং সংশাধনের জন্য দেওয়ানী আদালতে ১৫৪/১০ নং মোকদ্দমা দায়র করেন। দেওয়ানী মোকদ্দমায় বাদী পক্ষের প্রার্থিত মত ৫৮১০/৭৫ নং দলিলের মৌজার নাম ভাতারিয়ার স্থলে ডাইনকিনি ও খতিয়ান নং হাল ৩৬এর স্থলে ৬৭ হইবে বিজ্ঞ আদালত এই মর্মে রায় ঘোষনা প্রদান করেন। অপরদিকে প্রতি-পক্ষগনের দলিলপত্রাদি পর্যালাচনা করে দেখা যায় নালিশি ভূমির এসএ,আরএস রেকডীর্য় হালিমুনেছা ৪৩৬৭/৯৪,৪৪৯৫/৯৪ ও ৬৪৭১/৯৪,৭১২২/৯৪ সাব কাবলা দলিল মূলে (০.০৪+ ০.১৪+০.১৭ +০.০৫)= মোট ০.৪০ একর ভূমি হাজী আমিন উদ্দিনর বরাবর এবং ৪৩৬৬/১৯৯৪ নম্বর সাফ কবলা দলিল মূল ০.০৬ একর ভূমি হাজরা বেগম এর বরাবর বিক্রয় করেন।পরে হাজরা বেগম ৪৫২৫/১৯৯৪ সাব কাবলা দলিল মূলে ৬ শতাংশ সম্পত্তি হাজী আমিন উদ্দিনের নিকট বিক্রি কর দেন। পর্যায়ক্রমে হাজী আমিনুদ্দিন মোট(০.৪০ +০.০৬)= ০.৪৬ একর জমির মালিকানা অর্জন করে। মৃত্যুবরণ করার পর তার ওয়ারিশগণ তর্কিত জমির নামজারি ও জমাভাগ মুকাদ্দমায় নামজারি করেন। এবং মিস মুকাদ্দামায় তফসিল বর্ণিত ভূমির বিষয় ১৫৪/১০ নম্বরে দেওয়ানী মোকাদ্দমার রায় ৫৮১০/৭৫ নং দলিলে মৌজার নাম ভাতারিয়ার স্থলে ডাইনকিনি ও খতিয়ান নম্বর ৩৬ এর স্থলে ৬৭ হবে মর্মে রায় প্রদান করেন। এত উভয় পক্ষের একই দলিল দাতা পরবর্তীত বিবাদী পক্ষের বরাবর রেজিস্ট্রিকৃত ৪৩৬৭/৯৪ ,৪৪৯৫/৯৪ , ৬৪৭১/৯৪,৭১২২/৯৪ ও ৪৩৬৬/৯৪ দলিলের আইনগত আর কোন বৈধতা থাকে না। আদালত প্রার্থী পক্ষের দাবি যুক্তিযুক্ত উলস্নখ করে মামলার নথিপত্র ও সার্বিক পর্যালাচনা শেষ ৮৫১/২০০০-২০০১নং নামজারী ও জমাভাগ মোকাদ্দমা মূল প্রতিপক্ষর নাম সজিত জাত বাতিল পূর্বক নালিশি জমি মূল জাত ফরত দওয়ার জন্য সুপারিশ করন। পর নির্বাহী ম্যজিষ্ট্রট ও উপজলা সহকারী কমিশনার ভুমি প্রজাস্বত্ব আইন ১৯৫০এর ১৫০ধারার বিধান মত ডানকিনি মজার তর্কিত নামজারী ও জমাভাগ নথি নং ৮৫১/২০০০/২০০১। জাত নম্বর ১৯৫ মুল সজিত জাত বাতিল কর সমুদয় ভূমি মুল জাত ফরত দওয়ার আদশ জারি করন। মুলজাত জমি ফরত নওয়ার পর আমার নাম জাত খাল ১৪২৮ বাংলা সন পর্যত্ম খাজনা পরিশাধ পরিশাধ করা হয়ছ। এছাড়া বিজয়পাল আমার নিকট থক য আড়াই শতাংশ জমি ক্রয়র বায়না করছিল তিনি টাকার অভাব জমি রজিষ্ট্রি কর নিত না পারায় তার সমুদয় বায়নার টাকা কালিয়াকর সাবরজিষ্ট্রির অফিসর মাধ্যম তাক ফরত দওয়া হয়ছ তার দলিলাদি আমার নিকট প্রমান হিসব রয়ছ।

উলস্নখ্য মাসুদ ও হানিফ য অভিযাগ করছ তা সত্য নয়। নুরদ্দিনসহ সংবাদ সম্মলন অভিযাগকারীরা আমার প্রতি পক্ষর প্ররাচনায় আমার সামাজিক জনপ্রিয়তায় ইর্ষাহ্নিত হয় সামাজিক ও ইউনিয়নবাশীর কাছ আমার মানসম্মান নষ্ট করার জন্য মিথ্য কল্পকাহিনী তৈরি করে সংবাদ প্রচার করেছে। আমি এর তীব্র নিদা ও প্রতিবাদ জানাছি।



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

পাঠক মতামত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩১৯ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই