তারিখ : ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, শনিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

নির্বাচনকে ঘিরে মাঠে সরব নতুন ও পুরাতন মুখ

২নং কাশিমপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন
আসন্ন নির্বাচনকে ঘিরে মাঠে সরব নতুন ও পুরাতন মুখ
[ভালুকা ডট কম : ২৯ সপ্টেম্বের]
আসন্ন ইউপি নির্বাচনকে ঘিরে নওগাঁর রাণীনগর উপজেলায় শুরু হয়েছে আগাম নির্বাচনী প্রচার কাজ। ধীরে ধীরে চাঙ্গা হয়ে উঠছে নির্বাচনী এলাকাগুলো। অনেক মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থীরা দৃষ্টি আকর্ষনের লক্ষ্যে নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন মোড়, রাস্তা ও জনমুখর স্থানগুলো রঙ্গিন শুভেচ্ছা পোস্টার লাগিয়েছেন।

উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ২নং কাশিমপুর ইউনিয়ন পরিষদ। কাশিমপুর রাজবাড়ির নাম অনুসারে এই ইউনিয়নের নামকরন করা হয় কাশিমপুর ইউনিয়ন পরিষদ। এই ইউনিয়ন পরিষদ ১৫টি গ্রাম নিয়ে গঠিত। মোট ভোটার হচ্ছে ১৫হাজার ৫শত ১৮জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৭হাজার ৭শত ২৫জন এবং মহিলা ভোটার ৭হাজার ৭শত ৯৩জন।

আসন্ন নির্বাচনকে ঘিরে ঐতিহ্যবাহী এই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী পরিবারের একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রার্থীর নাম শোনা যাচ্ছে। মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মধ্যে রয়েছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের উপদেষ্ঠা ও ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ইব্রাহীম আলী মন্ডল, ইউপি আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক ইউপি সদস্য আলমগীর হোসেন, ইউপি আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক আব্দুল মান্নান, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আব্দুল গফুর, সাবেক দপ্তর সম্পাদক আব্দুল মান্নান মহুরী। এছাড়াও বর্তমান চেয়ারম্যান মোকলেছুর রহমান বাবু ও যুবদল নেতা বেদারুল ইসলামের নাম জোড়েসোড়ে শোনা যাচ্ছে।

সাবেক চেয়ারম্যান ইব্রাহীম আলী মন্ডল বলেন আমি এই ইউনিয়নবাসীর কাছে চেনা মুখ। তাই দল যদি আমাকে মনোনয়ন দেয় আমি আশাবাদি জনগন আমাকে বিপুল ভোটে বিজয়ী করে প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করবেন।

সাবেক ইউপি সদস্য আলমগীর হোসেন বলেন ইউনিয়নবাসী পরিবর্তন চায়। তাই আমি দলীয় সমর্থন নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে আধুনিক ও মডেল ইউনিয়ন গড়ার শেষ কাজটুকু করতে চাই। আশা রাখি দল আমাকে সেই সুযোগ দিবে।

ইউপি আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক আব্দুল মান্নান বলেন আমার ৪০বছরের রাজনৈতিক জীবনে অনেক নির্যাতিত ও অত্যাচারিত হয়েছি। যখন আওয়ামীলীগের নাম কেউ মুখে নিতে পারতো না তখন রাজপথে নেমে লড়াই-সংগ্রাম করেছি। আমি ২০১৬সালের নির্বাচনে নৌকা প্রতিক পেয়েছিলাম কিন্তু বিভিন্ন ষড়যন্ত্রে আমি হেরে গেছি। তাই আমি আশাবাদি এবারও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে দলীয় সমর্থন দিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার সুযোগ দিবেন।

ইউপি আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আব্দুল গফুর বলেন আমার রক্তে আওয়ামীলীগের আদর্শ মিশে আছে। বর্তমানে এই ইউনিয়নের অধিকাংশ রাস্তা চলাচলের অযোগ্য। তাই আমি আশাবাদী দল আমার সবকিছু যাচাই করে এবং তৃনমূলের জরিপের ভিত্তিতে চেয়ারম্যান পদে আমাকেই দলীয় সমর্থন দিবেন। আর আমি চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গিকার অনুসারে ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামে শহরের সুবিধা পৌছে দিতে চাই। বর্তমান চেয়ারম্যান মোকলেছুর রহমান বাবু বলেন ইউনিয়নবাসী আমাকে দুইবার চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেছেন। আসন্ন ইউপি নির্বাচন যদি সুষ্ঠ, সুন্দর ও অংশগ্রহণ মূলক হয় তাহলে আমি আবারও নির্বাচন করবো।

যুবদল নেতা বেদারুল ইসলাম বলেন যদি বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয় তাহলে আমি আশাবাদি অবশ্যই আমি দলীয় সমর্থন পাবো। কারণ ইউনিয়নবাসীর পাশে আমি আগেও ছিলাম এখনোও আছি আর আগামীতেও থাকবো। আর চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে সাধারন মানুষদের আরো কাছে গিয়ে সেবা করার সুযোগ ইউনিয়নবাসী আমাকে দিবেন এই বিশ্বাসটুকু আমার আছে।

উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক রোকনুজ্জামান খাঁন রুকু বলেন কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের উপর নির্ভর করছে নির্বাচনে অংশগ্রহনের বিষয়টি। যদি দল সিদ্ধান্ত নেয় যে বিএনপি ইউপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে তাহলে আমরা প্রার্থীর তালিকা পাঠাবো। সেক্ষেত্রে কেন্দ্র যাকে মনোনয়ন দিবে আমরা তার হয়েই কাজ করবো।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনের সাংসদ আলহাজ্ব মো. আনোয়ার হোসেন হেলাল বলেন তৃনমূলের জরিপের ভিত্তিতে আমরা তালিকা পাঠাবো। পরবর্তিতে দল যাকে চ’ড়ান্ত মনোনয়ন দিবে আমরা তার হয়েই কাজ করবো।#










 



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

নির্বাচন বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩২৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই