তারিখ : ০২ জুলাই ২০২২, শনিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

শ্রীপুরে ব্যবসায়ীকে অপহরণ ১৫ ঘন্টার পর উদ্ধার

শ্রীপুরে ব্যবসায়ীকে অপহরণ ১৫ ঘন্টার পর উদ্ধার
[ভালুকা ডট কম : ০৭ মে]
গাজীপুরের শ্রীপুরে এক মুদি ব্যবসায়ীকে অপহরণের ১৫ ঘন্টার পর উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত শনিবার (৬ মে) রাত সাড়ে আটটার সময় তেলিহাটি ইউনিয়নের আবদার গ্রামে দাদা গ্রুপ অফ কোম্পানির সামনে এ ঘটনা ঘটে। অপহৃত ব্যবসায়ী জহিরুল ইসলাম আবদার গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে। এ ঘটনায় জহিরুল ইসলামের স্ত্রী আয়েশা আক্তার বাদী হয়ে শনিবার রাতেই শ্রীপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

আয়েশা আক্তার জানান রাত আটটার সময় আমার স্বামীকে একটি কালো রঙ্গের হায়েচ গাড়ির ভিতর থেকে অজ্ঞাতনামা ৪/৫জন যুবক জোরর্পূবক তুলে নিয়ে যাওয়ার সময় দোকানদাররা দেখে ফেলে। পরে আমি খবর পেয়ে বিভিন্ন জায়গায় যোগাযোগ করে জানতে পারি কাওরাইদ ইউনিয়নের ধামলই গ্রামের মফিজ উদ্দিনের ছেলে সেনা সদস্য আশরাফুল ইসলাম তাকে অপহরণ করেছে। আমার স্বামীর নাম্বারে একাধিকবার ফোন করলে নাম্বারটি বন্ধ পাওয়া যায়। পরে রাতে আমাকে আশরাফুল জানায় তাকে টাঙ্গাইল জেলার ডিবির র্কাযালয়ে নিয়ে গেছে। সেখানে তাকে মাদক দ্রব্য আইনে মামলা দিবে। বিষয়টি আমি তাৎক্ষনিক শ্রীপুর থানাকে অবহিত করি। ওসিকে বিস্তারিত জানানোর পর অপহরণকারী আশরাফুল ইসলামের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে আমার স্বামীকে অপহণের কথা শিকার করে। তাকে অপহরণ করে শরীরে বিভিন্ন স্থানে বেদড়ক পিটিয়ে গুরুতর জখম করে ১৫ ঘন্টা পর আজ সকাল ১১ টায় শ্রীপুর থানায় অসুস্থ অবস্থায় ফেরৎ দেয়। আমি চিকিৎসা নিতে চাইলে আশরাফুলের লোকজন চিকিৎসা নিতে দেয়নি। পরে থানা থেকে পালিয়ে এসে ময়মনসিংহ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছি।

অপহৃত ব্যবসায়ী জহিরুল ইসলাম জানান, আমাকে আমার বাসার সামনে থেকে একটি হাইয়েচ গাড়িতে তুলে হাত-পা বেঁধে শরীরের বিভিন্ন অংশে পিটিয়ে জখম করে। আমার কাছ থেকে একাধিকবার খালি স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর নেয়ার চেষ্ঠা করে। আমার মুখের ভিতরে লাঠি ঢুকিয়ে সামনের দুটি দাঁত ও ডান হাতের আঙ্গুল ভেঙ্গে ফেলে। আমি বর্তমানে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছি।

অভিযুক্ত সেনা সদস্য আশরাফুল ইসলাম ১৭ ইসিবি মাটিকাটা কালা পানি ঢাকা ক্যান্টেম্যান্টে কর্মরত রয়েছে। তিনি জানান প্রায় আড়াই বছর পূর্বে জহিরুলের কাছ থেকে সাড়ে ৩ শতাংশ জমি বায়না করেছি। কিন্তু আজ পর্যন্ত আমার কাছে জমি রেজি:ষ্টি করে দেয়নি। আমি নিরুপায় হয়ে আমার টাকা উদ্ধার করার জন্য তাকে অপহরণ করেছি।

শ্রীপুর থানার অফির্সাস ইনর্চাজ (ওসি) মনিরুজ্জামান জানান,অপহরণের খবর পেয়ে তাৎক্ষনিক অপহরণকারীর মোবাইল নাম্বারে ফোন করলে অপহরণের কথা শিকার করেছে। পরে আজ সকাল ১১ টায় থানায় ফেরৎ দিয়েছে। তবে জমি সংক্রান্তের বিষয়ে ভিকটিমের কাছে টাকা পাওনা। দু-পক্ষকে ডেকে স্থানীয়ভাবে আপোষ মিমাংশা করার জন্য প্রস্তাব দেয়া হয়েছে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অপরাধ জগত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৩৪৩০ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই