তারিখ : ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

রাণীনগরে জাতীয় সমবায় দিবস উদযাপন

যুদ্ধ পরবর্তি বাংলাদেশ বিনির্মাণ করতেই বঙ্গবন্ধু নিজ হাতে সমবায় অধিদপ্তর গড়েছিলেন-এমপি হেলাল
[ভালুকা ডট কম : ০৪ নভেম্বর]
নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মো. আনোয়ার হোসেন হেলাল বলেছেন স্বাধীনতা যুদ্ধের পর যুদ্ধ বিধ্বস্ত লাল-সবুজের বাংলাদেশ বিনির্মাণ করতে স্বাধীন বাংলার স্বপ্নদ্রষ্টা হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী বঙ্গবন্ধু নিজ হাতে গড়ে তুলেছিলেন সমবায় অধিদপ্তর। দশের লাঠি একের বোঝা তাই বঙ্গবন্ধু দ্রুত আধুনিক বাংলাদেশ গড়ে তুলতে সমবায় ভিত্তিক বিনিয়োগকে প্রাধান্য দিয়েছেন। আজ আমরা বঙ্গবন্ধুর সেই সমবায়ের সুফল ভোগ করছি বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার চৌকস নেতৃত্বের মাধ্যমে। তাই সমবায়ের মূল উদ্দেশ্যকে ঠিক রেখে জননেত্রী শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে প্রত্যকটি সমবায় সমিতিকে গুরুত্বপূর্ণ ভ’মিকা রাখতে হবে। আগামীতেও এই সুফল আর উন্নয়নের এই ¯্রােতধারাকে অব্যাহত রাখতে মানবিক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের কোন বিকল্প নেই। তিনি মানবিক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্থ্যতার জন্য দোয়া ও আগামী জাতীয় নির্বাচনে আবারো উন্নয়নের প্রতিক নৌকায় ভোট প্রার্থনা করেন।

“সমবায়ে গড়েছি দেশ, স্মার্ট হবে বাংলাদেশ” ও “বঙ্গবন্ধুর দর্শন, সমবায়ে উন্নয়ন” এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে নওগাঁর রাণীনগরে নানা আয়োজনে ৫২তম জাতীয় সমবায় দিবস উদযাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি এই কথাগুলো বলেন। দিবস উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন, সমবায় কার্যালয় ও সমবায়ীবৃন্দদের যৌথ উদ্দ্যোগে নানা কর্মসূীচ গ্রহণ করা হয়।

শনিবার কর্মসূচির প্রথমেই একটি বর্ণাঢ্য সমবায় র‌্যালী বের হয়ে উপজেলা গোলচত্বর প্রদক্ষিণ শেষ উপজেলা প্রাঙ্গনে এসে শেষ হয়। সেখানে জাতীয় ও সমবায়ী পতাকা উত্তোলন শেষে উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়ামে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মে তাবাসসুমের সভাপতিত্বে দেশের সকল শহীদদের প্রতি সম্মান প্রদর্শন পূর্বক এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এছাড়াও আলোচনা সভায় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রউফ দুলু, সহকারি কমিশনার (ভ’মি) মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান, কৃষি কর্মকর্তা ফারজানা হক, সাবেক কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. ইসমাইল হোসেন, সমবায় কর্মকর্তা জাফরুল ইসলাম, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবু ওবায়েদ, জেলা পরিষদের সদস্য জাকিয়া সুলতানা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। এছাড়াও উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান ফরিদা বেগম, জার্জিস হাসান মিঠু, জেলা পরিষদের সদস্য জাকির হোসেন জয়, প্রশাসনের অন্যান্য দপ্তরের প্রধান, জনপ্রতিনিধিগন, রাজনৈতিক ব্যক্তি ও বিভিন্ন সমবায় সমিতির সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে সর্বোচ্চ রাজস্ব দাতা ও সমবায় খাতে গুরুত্বপূর্ন অবদান রাখায় উপজেলার বিভিন্ন সমবায় সমিতির মাঝে ক্রেস্ট ও সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকার বাইরে বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৮৯০৫ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই