তারিখ : ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, সোমবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় আমন ধানে ভরে উঠছে আঙ্গিনা

ভালুকায় আমন ধানে ভরে উঠছে কৃষকের আঙ্গিনা
[ভালুকা ডট কম : ২০ নভেম্বর]
হেমন্তের ভোরের আলোয় কুয়াশার চাদর ছড়ানো মাঠে মাঠে সোনালী ধানের ছড়ায় রুপালী শিশির জমে থাকা গোছায় কাস্তে চালনায় ব্যস্ত কৃষকের দল। ভালুকা উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে আমন ধান কাটায় মাঠ জুরে কৃষকের দৌড়ঝাপ শুরু হয়েছে। বাড়ীর উঠানে জমতে শুরু করেছে মৌ মৌ গন্ধ ভরা সোনালী ধানের আঁটির পাহাড়। মাঠে মাঠে চলছে দলবদ্ধ শ্রমিকদের দিনভর পাকা ধান কেটে আঁটি বাঁধা আর দিনশেষে গৃহস্থের উঠানে পৌছে দেওয়া।

অপর দিকে গৃহস্থ বাড়ীর বউঝি’রা গোবর দিয়ে লেপে উঠান তৈরী, ধান সিদ্ধর চুলা ও মাচা তৈরী করতে বিরামহীন কর্ম ব্যস্ত সময় পার করছেন এ সময়। তাদের মাঝে দেখা দেয় নতুন ফসল ঘরে তুলে গোলা ভরার রঙ্গীন সপ্নের চঞ্চলতা। রাত ভোর হতেই শুরু হয় উঠান ঝাড় দিয়ে উনুন ধরিয়ে সকালের নাস্তা তৈরী। প্রাতরাশ সেরে কাস্তে আর বাহুক নিয়ে কৃষকরা মাঠে যাবে ধান কাটতে। বিকেল হতেই ধানের আটি জমতে শুরু করবে বাড়ীর উঠানে।

গৃহস্থ বাড়ীতে কাজের সহযোগী হিসেবে যোগ দেন গ্রামের মহিলা শ্রমিকরা। দল বেঁধে কৃষকরা ধানের গোছায় কাস্তে লাগিয়ে ফসল কাটায় পার করেন সারা বেলা। বেলা পরার সাথে সাথে ধানের আঁটি মাথায় করে বাড়ীর উঠানে জড়ো আর ধান ছাড়ানোর ধপাস ধপাস শব্দে মুখর বাহির বাড়ির আঙ্গিনা। হেমন্তের মিষ্টি হাওয়ায় মাঠে মাঠে দিগন্ত জোড়া সোনালী ধান আবাহমান বাংলার ঘরে ঘরে এক অজানা উৎসবের আমেজে ভরে উঠে কৃষান কৃষাণীর মনপ্রাণ। পাকা ধান কাটা ও মাড়াই করে গোলায় উঠানোর পর শুরু হয় নবান্নের নানা উৎসব। সারা রাত নারার আগুনে সিদ্ধ করা ধান পরদিন উঠানে রোদে শুকাতে দিতে গৃহস্থ বউ-ঝিদের মাথার ঘাম পায়ে ঝরে তবু বিশ্রাম নেয়ার অবকাশ থাকেনা। সাঁঝ বেলায় নাওয়া খাওয়া করে আবার রাতেই শুরু হয় ঢেকিতে চিকুর চিকুর শব্দ তোলে ধান বানার কাজ। “ ও ধান বানিরে ঢিকিতে পাড় দিয়া, ঢেকি নাচে আমি নাচি হেলিয়া দোলিয়া ও ধান বানিরে”। ঢেকিতে চালের গুড়া করা হয় যা দিয়ে বিশেষ করে এ সময় নানা রকম শেিতর পিঠা তৈরী করা হয়। খেজুরের কাঁচা রসের খীর পায়েশ, মুখ রোচক সুস্বাদু খাবারের সমারোহে বাড়ি বাড়ি আত্মীয় কুটুমদের ভীড় জমে । শশুরবাড়ী হতে বাপেরবাড়ী বেড়ে যায় বউ ঝিদের আনাগোনা। রোববার দুপুরে উপজেলার কাদিগড় গ্রামে কৃষক সাইফুল ইসলাম ব্রী-ধান ৭১ আগাম জাতের আমন ধান কাটছিলেন শ্রমিকদের সাথে নিয়ে। তিনি জানান শ্রমিকদের ৫০০ টাকা রোজ হিসেবে ধান কাটাচ্ছেন। এবার ধানের ফলন ভাল হয়েছে দামও ভাল পেয়ে তিনি খুশি।

আমন মৌসুমে বিভিন্ন জাতের ধানের আবাদ হয়। গত কয়েক বছর যাবৎ অধিক ফলনসীল উন্নত জাতের ধানের আবাদ করে দাম ভাল পাওয়ায় কৃষক পরিবারে আনন্দের সীমা নেই। আগাম ব্রী-ধান ৭১ আগাম ব্রী-ধান ৭০ কয়েকদিন পূর্ব হতেই কাটা শুরু হয়েছে। বর্তমানে ব্রী-ধান ৫১ সহ অন্যান্য জাতের ধান কাটা শুরু হয়েছে। এসব আগাম জাতের ধান কেটে কৃষকরা রবি মৌসুমে সরিষা ও অন্যান্য রবিশস্য আবাদ করতে পারবেন।

এছারা সোনলী বরণ ব্রি ধান ৩৪ সুগন্ধি চিনিগুড়ি, স্থানীয়জাত কালিজিরা, গুডি শাইল, আমন শাইল ইত্যাদি সুগন্ধি ধানের চিকন চালে বাঙ্গালীদের ঈদ পার্বন আচার অনুষ্ঠানে আদি কাল হতে রিচফুড পোলাও,ফিন্নি, ক্ষীর পায়েশ ইত্যাদি মুখরোচক খাবার তৈরী হয়। যে জন্য এসব সুগন্ধি চালের চাহিদা রয়েছে ব্যপক। তিনি জানান উফসী ও স্থানীয় জাত ধানের বাজার মুল্য বর্তমানে ১০০০ টাকা মণ দরে নতুন ধান বিক্রি হচ্ছে। অপরদিকে সুগন্ধি ধান কালিজিরা, চিনিগুড়ি প্রতিমণ ১৫০০ থেকে ১৮০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তিনি জানান অন্যান্য বছরের তুলনায় এবছর আমণ আবাদে রোগবালাই তেমন ছিলনা, বৃষ্টি হয়েছে উপযুক্ত সময়ে যে কারনে আমন ধানের ফলন ভাল হয়েছে। ধান কাটার শ্রমিকদের মজরী ৫০০ টাকা রোজ হওয়ায় সহনীয় পর্যায়ে রয়েছে। ভালুকা উপজেলার ১১ টি ইউনিয়নের বেশিরভাগ ইউনিয়নেই কমবেশী আমন ধানের আবাদ হয়ে থাকে। এর মধ্যে ভালুকা, মল্লিকবাড়ী, বিরোনিয়া, মেদুয়ারী, রাজৈ, উথুরা, কাচিনা, ডাকাতিয়া ও হবিরবাড়ী ইউনিয়নের  জমি উঁচু ও সমান্তরাল হওয়ায় এসব এলাকায় আমন আবাদ বেশী হয়।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জেসমিন জাহান জানান এ বছর আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় রোগ বালাই তেমন হয়নি যে কারনে আমন ধানের বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে। আগাম ব্রী-ধান ৭১, ব্রী-ধান ৭০ কয়েকদিন পূর্ব হতেই কাটা শুরু হয়েছে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৮৯০৫ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই