তারিখ : ২৬ জুন ২০১৯, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের জন্য সমাজ পতিদের দ্বারে দ্বারে ঘুড়ছে অনিকা

ভালুকায় বন খেকো মনিরের নির্যাতনের শিকার হয়ে সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের জন্য দ্বারে দ্বারে ঘুড়ছে অসহায় এক নারী
[ভালুকা ডট কম : ২৬ আগস্ট]
ভালুকায় মনির হোসেন ওরফে বন খেকো মনির ওরফে জঙ্গইল্লা মনিরের নির্যাতনের শিকার হয়ে সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের জন্য সমাজ পতিদের দ্বারে দ্বারে ঘুড়ছে অনিকা আক্তার মিতু নামে এক অসহায় নারী। গত ২১শে আগস্ট মিতু তার শিশু কন্য সন্তান নিয়ে মনিরের বাসায় উঠলে নির্যাতনের শিকার হন মিতু। এছাড়াও বন খেকো মনিরের বিরুদ্ধে তার চাচাত ভাই তরিফুল্ল্যাহ বাদী হয়ে দুনীতি দমন কমিশন ও প্রধান বন সংরক্ষক সহ বিভিন্ন দপ্তরের অভিযোগ দায়ের করেছেন। মনিরের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি বনআইন ও নারী নির্যাতন সহ রয়েছে ২৫টি মামলা।

জানাযায়, ভালুকা উপজেলা বারশ্রী গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে মনির হোসেন ওরফে বন খেকো মনির ওরফে জঙ্গইল্লা মনির নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলার উপজেলার শিষকান্দি গ্রামের উসমান গণির মেয়ে অনিকা আক্তার মিতুকে বিয়ের প্রলোবন দেখিয়ে শারিরিক সম্পর্ক গড়ে তুলে এক পর্যায়ে মিতু আন্তসত্তা হয়ে পরলে মনির কে বিয়ের জন্য চাপ দেয় তখন মনির বিয়ে না করে টালবাহানা শুরু করলে নিরুপায় হয়ে মিতু বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ভালুকা মডেল থানা একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা দায়েরের কিছুদিন পর মনির বাহিনীর চাপের মুখে বাদীর কাছ থেকে জুর পূর্বক আপোষ নামা নিয়ে তরিগড়ি করে মোট অংকের টাকা নিয়ে মামলার তদন্ত কারী কর্মকর্তা তৎকালীন ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মামুন অর রশিদ মামলাটির চুড়ান্ত রিপোট আদালতে দাখিল করেন এরই মধ্যে গত রমজান মাসে মিতু একটি মেয়ে সন্তান প্রসব করেন প্রসব করার পর থেকে সমাজ পতিদের দ্বারে দ্বারে গোড়ছে সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের জন্য। অবশেষে নিরুপায় হয়ে গত ২১শে আগস্ট মিতু তার শিশু কন্য সন্তান নিয়ে মনিরের বাসায় উঠলে মনিরের বড় স্ত্রী, শুশুর, শাশুরী মিলে মারপিট করে বাড়ী থেকে বের করে দেয়। এছাড়াও বন খেকো মনিরের বিরুদ্ধে তার চাচাত ভাই তরিফুল্ল্যাহ বাদী হয়ে দুনীতি দমন কমিশন ও প্রধান বন সংরক্ষক সহ বিভিন্ন দপ্তরের অভিযোগ দায়ের করেছেন।

তাছাড়াও হবিরবাড়ী মৌজায় ১৮৫ নং দাগে প্রায় ২ কোটি টাকা মূল্যের জমি সন্ত্রাসী কায়দা জবর দখল ও ৭৫৪ নং দাগে ৩১ একর ও ৪৭১ নং দাগে ৮ একর সহ শতকোটি টাকা মূল্যের বনের জমি জবর দখল করে। বনের জমি জবর দখলের ঘটনায় বনআইন, চাঁদাবাজি ও নারী নির্যাতন সহ বন খেকো মনিরের বিরুদ্ধে রয়েছে ২৫টি মামলা।

অনিকা আক্তার মিতু জানান, আমি সন্তানের পিতৃ পরিচয়ের জন্য মনির বাসায় ঈদের আগের দিন বাসায় উঠলে মনিরের বড় স্ত্রী, শুশুর, শাশুরী মিলে মারপিট করে বাড়ী থেকে বের করে দেয়। আমি মনির বাহিনীর ভয়ে থানায় পর্যন্ত যেতে পারিনী।

অভিযুক্ত মনির হোসেন ওরফে বন খেকো মনির ওরফে জঙ্গইল্লা মনির জানান, অনেকেই আমার বিরুদ্ধে পত্রিকায় লিখেছে আপনিও লেখেন। এতে আমার কিছু আসে যায় না।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৫৭৬ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই