তারিখ : ১৫ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

লালবাগে প্লাস্টিক কারখানায় অগ্নিকাণ্ড,তদন্ত কমিটি গঠন

লালবাগে প্লাস্টিক কারখানায় অগ্নিকাণ্ড,তদন্ত কমিটি গঠন
[ভালুকা ডট কম : ১৫ আগস্ট]
পুরান ঢাকার লালবাগের ইসলামবাগ এলাকায় গতরাতে একটি প্লাস্টিক কারখানায় আগুন লাগার ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে ফায়ার সার্ভিস। আগুন নিয়ন্ত্রণের পর আজ (বৃহস্পতিবার) সকালে এই কমিটি গঠন করা হয়। ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক (অপারেশন) দীলিপ কুমার ঘোষকে কমিটির প্রধান করা হয়েছে। সহকারী পরিচালক (এডি) আব্দুল হালিম এবং উপ-সহকারী পরিচালক (ডিএডি) নিউটন দাসকে কমিটির সদস্য করা হয়েছে। কমিটিকে পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে রিপোর্ট দেয়ার সময়সীমা বেধে দেয়া হয়েছে।

বুধবার রাত পৌনে ১১টার দিকে ইসলামবাগ এলাকার পোস্তা ঢালে একটি প্লাস্টিক কারখানায় আগুন লাগে। ফায়ার সার্ভিসের ১৬টি ইউনিট প্রচেষ্টা চালিয়ে রাত দেড়টায় তা নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়। কারখানায় ঈদের ছুটি থাকায় কেউ হতাহতের ঘটনা ঘটেনি বলে ফায়ার সার্ভস জানিয়েছে। তবে আগুন লাগার কারণ সম্পর্কে তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, একটি ট্রান্সমিটার বিস্ফোরণে পর পরই পোস্তা ঢালের তিনতলা ভবনে স্থাপিত হাজী টিপুর প্লাস্টিক কারখানায় আগুনের সূত্রপাত হয়। আগুন লাগার সঙ্গে সঙ্গে কুণ্ডলি পাকিয়ে ধোঁয়া বের হতে থাকে। ওই কারখানার আশপাশে রয়েছে চামড়ার গোডাউন। ফায়ার সার্ভিস ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে সেখানকার বাসা-বাড়ির লোকজনকে  নিরাপদে সরিয়ে দেয়।

ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণকক্ষের কর্তব্যরত কর্মকর্তা এরশাদ জানান, পোস্তায় রাত পৌনে ১১টার দিকে একটি ভবনে অবস্থিত একটি জুতোর কারখানা, একটি পলিথিন কারখানা ও একটি আবাসিক বাড়িতে আগুন ছড়িয়ে পড়ে। জুতা ও পলিথিন কারখানায় দাহ্য পদার্থের কারণে আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে বলে জানিয়েছেন উদ্ধার কাজে নিয়োজিত ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার রাসেল শিকদার।

উল্লেখ্য, এর আগে ২০১৯ সালের ২০ ফেব্রুয়ারি রাতে পুরান ঢাকার চকবাজারে এক ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দগ্ধ হয়ে ৭৮ জন মারা যান। এ দুর্ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ হন আরো ৫২ জন। এ বছর এ বছর ২৮ মার্চ ভরদুপুরে রাজধানীর বনানিতে একটি ২২ তলা ভবনে আরো একটি ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে। এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ২৬ জন মানুষ জীবন্ধ দগ্ধ হয়ে মারা যান এবং আরো ৭০ জন আহত হন। এ ছাড়া, এ বছর রাজধানীতে কয়েকটি মার্কেট ও বস্তিতেও অগ্নিকাণ্ডের কারণে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ২০১০ সালের ৩ জুন পুরান ঢাকার নিমতলি মহল্লায় রাসায়নিক গুদামে একটি বড় অগ্নিকাণ্ড সংঘটিত হয় যা 'নিম্নতলি ট্রাজেডি' নামে অভিহিত। এই অগ্নিকাণ্ডে ১১৯ জন মানুষ দগ্ধ হয়ে নিহত হন। ২০১২ সালের ২৪ নভেম্বর ঢাকা মহানগরীর উপকণ্ঠ আশুলিয়ায় অবস্থিত তাজরীন ফ্যাশনস নামের একটি পোশাক কারখানায় সংঘটিত মারাত্মক অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় মোট ১১৭ জন পোষাক শ্রমিক নিহত হয় ও ২০০ জনের অধিক আহত হয়। এটি  বিশ্বর একটি ভয়াবহ শিল্প দুর্ঘটনা হিসেবে পরিচিত হয়ে রয়েছে। #





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

জীবন যাত্রা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২২০ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই