তারিখ : ০১ এপ্রিল ২০২০, বুধবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

সখীপুরে ৫১৪ প্রবাসীকে খুঁজছে উপজেলা প্রশাসন

সখীপুরে বিদেশ ফেরত ৫১৪ প্রবাসীকে খুঁজছে উপজেলা প্রশাসন
[ভালুকা ডট কম : ২৫ মার্চ]
টাঙ্গাইলের সখীপুরে বিদেশ  ফেরত ৫১৪ প্রবাসীকে হন্যে হয়ে খুঁজছে উপজেলা প্রশাসন। এ লক্ষে উপজেলার ১টি  পৌরসভা ও ৮টি ইউনিয়নে  মোট ৮১টি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তারা এসব প্রবাসীদের খুঁজতে মাঠ পর্যায়ে কাজ করবে।  গোয়েন্দা তালিকা অনুযায়ী চলতি মাসে পাঁচ হাজার ২৪৭ জন প্রবাসী বিভিন্ন  দেশ  থেকে টাঙ্গাইলের বিভিন্ন উপজেলায় ফিরেছেন।

এদিকে টাঙ্গাইল  জেলায় বর্তমানে ৭৯০ জন বিদেশ  ফেরতকে  হোম কোয়ারেন্টাইনের আওতায় আনা হয়েছিল। এর মধ্যে নির্দিষ্ট  মেয়াদ  শেষ হওয়ায় ১২০ জনকে  হোম  কোয়ারেন্টাইন  থেকে  ছেড়ে  দেয়া হয়েছে। সোমবার দুপুর পর্যন্ত ৬৭০ জন  হোম  কোয়ারেন্টাইনে আছে। টাঙ্গাইলের সিভিল সার্জন ডা.  মোহাম্মদ ওয়াহীদুজ্জামান জানান, বর্তমানে টাঙ্গাইল  জেলায়  মোট ৭৯০ জন বিদেশ  ফেরতকে  হোম করেন্টাইনের আওতায় আনা হয়েছিল। এর মধ্যে নির্দিষ্ট সময় পার হওয়ায় ১২০ জনকে   হোম করেন্টাইন  থেকে অবমুক্তি  দেয়া হয়।

জানা যায়, এরই মধ্যে শুধু সখীপুর উপজেলায় ফিরেছেন ৬৪৭ জন প্রবাসী। উপজেলা প্রশাসন এ পর্যন্ত ১৩৩ জনকে বাড়িতে  কোয়ারেন্টিনে  রেখেছে। অবশিষ্ট ৫১৪ জনের  কোনো হদিস স্থানীয় প্রশাসনের কাছে ছিল না। বিদেশ  ফেরত এসব ব্যক্তির তথ্য উপজেলা প্রশাসন, থানা ও স্বাস্থ্য বিভাগের হাতে এসেছে। ওই ৫১৪ জনকে খুঁজতে গত শুক্রবার বিকেলে উপজেলা প্রশাসন প্রতিটি ইউনিয়ন ও  পৌরসভায় পৃথক কমিটি করে দিয়েছেন। এরপর  থেকে ওই কমিটি ৫১৪ জন প্রবাসীকে ঠিকানা ধরে খুঁজে  বের করে  কোয়ারেন্টিনের আওতায় আনার কাজ শুরু করে দিয়েছেন। উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও থানা প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলে এসব তথ্য জানা  গেছে।

সখীপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) বদিউজ্জামান বলেন, টাঙ্গাইল  জেলা পুলিশের কাছ  থেকে পাওয়া একটি তালিকা সখীপুর থানা পুলিশের হাতে এসেছে। ওই তালিকা ইউনিয়ন ভিত্তিক সাজিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের  চেয়ারম্যানদের কাছে  পৌঁছে  দেয়া হয়েছে।

সখীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও উপজেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি আসমাউল হুসনা লিজা বলেন, ইতিমধ্যে সখীপুরে ১৩৩ জনকে  হোম  কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। যারা  হোম  কোয়ারেন্টিনে থাকতে চাননি তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাজাও  দেয়া হয়েছে।#

করনোভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে সখীপুরকে নিরাপত্তা বেষ্টনী উপজেলা  ঘোষণা
করনোভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে টাঙ্গাইলের সখীপুরকে নিরাপত্তা বেষ্টনীর উপজেলা  ঘোষণা করা হয়েছে। বুধবার উপজেলার ২৩টি পয়েন্টে চিহ্নিত নিরাপত্তার মাধ্যমে করোনামুক্ত রাখতে  অন্য উপজেলা থেকে এ উপজেলাকে বিচ্ছিন্ন করার এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

প্রতিটি নিরাপত্তা চিহ্নিত বেষ্টনীতে পুলিশ, সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য, আনসার, গ্রাম পুলিশ ও  রোভার স্কাউটের সদস্যরা নিয়মিত পাহারা দেবেন। চিহ্নিত ওইসব পয়েন্ট দিয়ে এ উপজেলার কোনো  লোকজন ও গণপরিবহন অন্য উপজেলায় যেতে এবং অন্য উপজেলার কোনো  লোকজন ও গণপরিবহন এ উপজেলায় প্রবেশ করতে পারবে না। সখীপুর উপজেলার সীমান্তের নির্ধারিত ওই ২৩টি পয়েন্টে সড়কে বাঁশের বেড়া দেওয়াসহ উপজেলা প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা ব্যানার টানানো হয়েছে।

মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলা প্রশাসন করোনাভাইরাস প্রতিরোধ বিষয়ক এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এতে ইউএনও আসমাউল হুসনা লিজার সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন উপজেলা চেয়ারম্যান জুলফিকার হায়দার কামাল লেবু , ওসি আমির  হোসেন, ইউপি চেয়ারম্যান এসএম কামরুল হাসান প্রমুখ।#





সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

জীবন যাত্রা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১২৩৭ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই