তারিখ : ১৬ জুন ২০২৪, রবিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় ভূট্রা আবাদে চাষীদের আগ্রহ বাড়ছে

সরকারী প্রনোদনায়
ভালুকায় ভূট্রা আবাদে চাষীদের আগ্রহ বাড়ছে
[ভালুকা ডট কম : ২২ এপ্রিল]
কৃষি অধিদপ্তর হতে সরকারী প্রনোদনার মাধ্যমে ভালুকার বিভিন্ন গ্রামে ভূট্রা আবাদে চাষীদের আগ্রহ আগের তুলনায় দিন দিন বেড়েই চলেছে। লাভজনক অল্প জমিতে উৎপাদিত অন্যান্য ফসলের চেয়ে বেশী ফলন ও বাজার মূল্য বেশী পাওয়া যায় বলে ভূট্রা চাষীদের অভিমত।

উপজেলার মেদুয়ারী গ্রামের আকবর আলী খান জানান তিনি সরকারী ভাবে কৃষি প্রদর্শনীর জন্য উপজেলা কৃষি বিভাগ হতে ২ কেজি বীজ, সার টিএসপি ১ বস্তা, এমওপি ১ বস্তা, ইউরিয়া ২৫ কেজি, জৈব সার ২ বস্তা ও দুই শিশি ঔষধ পেয়েছিলেন ৩৩ শতাংশ জমিতে ভূট্রার আবাদ করার জন্য। তিনি ওই প্রদর্শনীর আওতায় মোট ৪০ শতাংশ জমিতে ভূট্রার আবাদ করেছেন। জমি চাষ বীজ বপন চারিদিকে নিরাপত্তা বেষ্টনী ও আনুষাঙ্গিক খরচ বাবদ ১৫ হাজার টাকা খরচ করেছেন। ২০২৩ সালের ১১ নভেম্বর বীজ বপনের পর চারা গজানোর পর হতেই পরিচর্যা শুরু করেন। বর্তমানে প্রতিটি গাছে ৫/৬ টি করে ভূট্রার মাচা পরিপক্ক হয়ে উঠেছে। কয়েক দিনের মধ্যে ফসল উঠানো হবে বলে তিনি আশাবাদী। প্রতি শতাংশ জমিতে এক মণ (৪০) কেজি ফলন পাওয়ার আশা করছেন।

বর্তমান বাজার মূল্যে ১১০০ টাকা মন দরে বিক্রি করতে পারবেন বলে তিনি জানান। এতে চল্লিশ শতাংশ জমি হতে তিনি প্রায় ৪০ মণ ভূট্রা উৎপাদন করে ৪৪ হাজার টাকা বিক্রি করতে পারবেন। এ ছাড়াও ভূট্রা গাছ গুলি জ্বালানী হিসাবে কাজে লাগবে। ওই গ্রামে আরও অনেক চাষী বেশি পরিমান জমিতে ভূট্রার আবাদ করেছেন। একই গ্রামের খাদেমুল ইসলাম লিটন ২ একর, মোবারক মেম্বার ৬ কাঠা, আব্দুর রাজ্জাক ১ একর, সফিকুল ইসলাম ১ একর, আবু হানিফ ১ একর সহ বেশ কয়েকজন কৃষক ভূট্রার আবাদ করে কৃষিতে চমক লাগিয়েছেন। এছারাও উপজেলার মল্লিকবাড়ী,চাঁনপুর, গোবুদিয়া, নয়নপুর,তালাব এলাকায় ভূট্রার আবাদ হয়েছে। ভালুকায় পোল্ট্রি খাদ্য উৎপাদনের বেশ কয়েকটি বড় আকারের মিল ফ্যক্টরী রয়েছে যেখানে ভূট্রার চাহিদা অপরিহার্য।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা নুসরাত জামান জানান বৃহত্তর ময়মনসিংহ অঞ্চলে ফসলের নিবিরতা বৃদ্ধিকরণ প্রকল্প কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পক্ষ হতে প্রদর্শনী প্লটের মাধ্যমে ভালুকায় চাষীদের সরকারী প্রনোদনা দিয়ে ভূট্রা আবাদে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে। উৎপাদন বাড়াতে সঠিক দুরত্বে বীজ বপন,সুষম সার ও জৈব সার প্রয়োগ নিয়মিত পরিচর্যা করতে চাষীদের উৎসাহিত করতে কৃষি বিভাগ সার্বক্ষনিক মাঠে কাজ করছেন।  রবি মৌসুমে ভালুকায় সর্ব মোট ১২০ হেক্টর জমিতে ভূট্রার আবাদ হয়েছে।#




সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৯৩৯০ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই