তারিখ : ২৪ অক্টোবর ২০২১, রবিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ হাইওয়ে সড়কে কাজে অনিয়ম

ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ হাইওয়ে সড়কে রোড বিভাজন রং এর কাজে অনিয়মের অভিযোগ
[ভালুকা ডট কম : ১০ সেপ্টেম্বর]
ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ হাইওয়ে সড়কে রাস্তার দু’পাশে এবং মধ্য অংশে রং করে রাস্তা বিভাজন করার কাজে মারাত্মক অনিয়ম ও দূর্নীতির গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সড়ক ও জনপথ কিশোরগঞ্জ সূত্রে জানাগেছে, কিশোরগঞ্জ থেকে কানারামপুর এবং কানারামপুর থেকে শম্ভুগঞ্জ পর্যন্ত রাস্তায় থার্মো প্লাসটিক বার্জার পেইন্ট, গ্লাসবিট ব্যবহার করে ২মি.মি করে রং এর কাজ করতে হবে। কিন্তু বাস্তবে ঢাকার নাসিম এন্টারপ্রাইজ নামক একটি প্রতিষ্ঠান এনামেল পেইন্ট ব্যবহার কর আধা মিলি থেকে ১ মিলি করে রাস্তায় রং লাগানোর কাজ করে যাচ্ছে। এতে করে অল্প কিছুদিনের মধ্যই রাস্তা থেকে রং উঠে যাবে। রাতের বেলায় গাড়ী চালানোর সময় এই রোড বিভাজন খুবই গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা রাখে। চালকরা রাস্তার রং দেখে গাড়ী সঠিক পথে চালাতে পারে। এই অনিয়মের ফলে রাস্তায় দূর্ঘটনা বৃদ্ধি পাবে বলে গাড়ী চালকদের সাথে কথা কলে জানা যায়।

উক্ত বিষয়ে কিশোরগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী রিতিশ বড়–য়ার সাথে সেল ফোনে বিষয়টি জানালে চাইলে তিনি বলেন, রোড বিভাজর্ন রং অব্যশই ২মিলি হতে হবে। ঠিকাদার অনিয়ম করে থাকলে তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। এছাড়া কাজটি দেখার জন্য একজন উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোহাম্মদ বাবুল মিয়া দায়িত্বে রয়েছেন।

নিমার্ন কাজের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান নাসিম এন্টারপ্রাইজের প্রকৌশলী জানান, কাজটি ৬০০ টাকা প্রতি মিটার দরে নেয়া হয়েছে। সরকারী দর ছিল ১১শত টাকা প্রতি মিটার। যার ফলে কাজের কিছুটা ক্রটি থাকতে পারে। স্থানীয় যাত্রী সাধারণ ও গাড়ীর চালকরা বিষয়টি জরুরীভাবে তদন্ত মূলে ব্যবস্থা গ্রহনের জোরদাবী জানিয়েছেন।#





 



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকার বাইরে বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩২৪ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই