তারিখ : ১৬ জানুয়ারী ২০২১, শনিবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

ভালুকায় বনবিভাগের জমিতে নির্মাণ হচ্ছে একাধিক বহুতল ভবন

ভালুকায় বনবিভাগের জমিতে নির্মাণ হচ্ছে প্রবাসীসহ একাধিক ব্যক্তির বহুতল ভবন
[ভালুকা ডট কম : ২৯ নভেম্বর]
ভালুকা উপজেলার শিল্পাঞ্চল হবিরবাড়ি এলাকায় রেঞ্জ অফিসের অদূরে কয়েক কোটি টাকা মূল্যের বনভূমি জবরদখল করে এক ইতালী প্রবাসীসহ একাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে বহুতল ভবন নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে। স্থাণীয় বনবিভাগের রহস্যজনক নিরবতায় বেহাত হয়ে যাচ্ছে সংরক্ষিত বনাঞ্চল।

সরেজমিন উপজেলার বেশ কয়েকটি এলাকা ঘুরে ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে যানা গেছে, হবিরবাড়ি মৌজার ভালুকা রেঞ্জ অফিসের নাকের ডগায় সিডষ্টোর উত্তর বাজারে ৯ নম্বর দাগে বনবিজ্ঞপ্তিত জমির উপর জান্নাত নামে এক ইতালী প্রবাসী ৫ তলা বাড়ি নির্মাণ করছেন। একই দাগে আব্দুস সাত্তার নামেও এক ব্যক্তি নির্মাণ করছেন আরেকটি ৫তলা বাড়িসহ মালেক আমীন ও মোতালেব মিয়াও পাকা বাড়ি নির্মাণ করছেন। তাছাড়া ১৮৫ নম্বর দাগে নায়েব আলীর ছেলে জামাল উদ্দিন ও স্থানীয় প্রভাবশালী মাহাবুব আলম, সাইদুর রহমান এবং হাবিবুর রহমান, ১১০ দাগে আনোয়ার হোসেন, ৭৭৮ দাগে শামছুদ্দিনের বাড়ি নির্মাণসহ উপজেলার জীবনতলা, কড়ইতলা ও জামিরদিয়া মৌজায় একাধিক বসতবাড়ি নির্মাণের অভিযোগ উঠেছে।

জমির সীমাণা নির্ধারণ বা ডিমারগেশন না থাকলেও বনের জমিতে কিভাবে বহুতল ভবন নির্মাণ করছেন এমন প্রশ্নে ইতালী প্রবাসী জান্নাতের ভাই জাকির হোসেন জানান, শাহাব উদ্দিন নামে স্থানীয় এক ব্যক্তির কাছ থেকে তিন শতাংশ জমি কিনে পাঁচতলা বাড়ি নির্মাণ করছি। খোঁজ নিয়ে দেখতে পারেন আমার কাগজপত্র ঠিক আছে। তাছাড়া অপরাপর বাড়ির মালিকদের এমন প্রশ্নে তারা বলেন, স্থানীয় বনবিভাগকে ম্যানেজ করেই এসব বহুতল ভবণ নির্মাণ করা হচ্ছে।

এলাকাবাসীর অভিযোগ, রেঞ্জ কর্মকর্তা মোজাম্মেল হোসেন ও বিট অফিসার মোহাম্মদ দেওয়ান আলী ভালুকা রেঞ্জে দায়িত্বে আসার পর থেকে হবিরবাড়িতে বনভূমি দখলের মহোৎসব চলছে। মালি জীবন দেওয়ানের মাধ্যমে বিট কর্মকর্তা সার্বিক খবরাখবর নিয়ে ভবণ মালিকদের সাথে যোগসাজশ করে তারা মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন বলেও স্থাণীয়রা জানান। তাই প্রকৃত ঘটনা তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উর্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সচেতন মহল।

এ ব্যাপারে ভালুকা রেঞ্জের হবিরবাড়ি বিট কর্মকর্তা মোহাম্মদ দেওয়ান আলী জানান, সিডষ্টোর বাজারের ৯ নম্বর দাগ পুরোটাই বনবিজ্ঞপ্তিত। ওই দাগে একের পর এক বহুতল ভবন নিমার্নের ব্যাপারে বিটের মালি জীবন দেওয়ানের সাথে কথা বলতে পারেন। তবে তাছাড়া খোঁজ নিয়ে দেখছি, যদি ঘর নির্মাণ চলমান থাকে তবে, তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

ভালুকা বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ১৩০০ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই