তারিখ : ১৬ জুলাই ২০২৪, মঙ্গলবার

সংবাদ শিরোনাম

বিস্তারিত বিষয়

হৃদয় হত্যা মামলার আসামী নওগাঁ থেকে গ্রেফতার

ঢাকার আশুলিয়ার বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র হৃদয় হত্যা মামলার আসামী নওগাঁ থেকে গ্রেফতার
[ভালুকা ডট কম : ২০ মে]
ঢাকার আশুলিয়া থেকে হৃদয় (২০) নামের এক বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রকে অপহরণের পর হত্যা ও লাশ গুমের ঘটনার অন্যতম আসামী মোঃ শাহীন বাবু (২৬) নামের এক যুবককে নওগাঁর মহাদেবপুর এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৫, সিপিসি-৩ (জয়পুরহাট ক্যাম্প) এবং র‌্যাব-৪, সিপিসি-২ সাভার। সে অপহরণের পর নওগাঁ জেলার মহাদেবপুর থানার রামরায়পুর এলাকায় আত্মগোপন করে ছিলো। গ্রেফতারকৃত শাহিন বাবু পার্শ্ববর্তী উপজেলা পোরশার ঘাটনগর মোল্লাপাড়া গ্রামের মোঃ মুসা আলীর ছেলে।

র‌্যাব জানায়, গত ০৮ মে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র মোঃ হৃদয় নিখোঁজ হলে তার বাবা ফজলুল মিয়া আশুলিয়া থানায় জিডি পূর্বক র‌্যাব-৪, সিপিসি-২ সাভার ক্যাম্প বরাবর একটি অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগে তিনি বলেন, তার ছেলে হৃদয়কে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তি অপহরণ করেছে এবং মুক্তির বিনিময়ে ৫০লক্ষ টাকা দাবি করেছে। অন্যথায় ভিকটিমকে মেরে ফেলার হুমকি প্রদান করেছে। এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি র‌্যাব-৪,সিপিসি-২ সাভারের  গোয়েন্দা দল ভিকটিম হৃদয়ের অপহরণ রহস্য উদঘাটন, অপরাধীদের গ্রেপ্তার ও অপহৃত ভিকটিমকে উদ্ধারের লক্ষ্যে তৎক্ষণাৎ অভিযোগের ছায়াতদন্ত শুরু করে। পরে র‌্যাব-৪,সিপিসি-২ সাভারের গোয়েন্দা দল অপহরণকারী পরান, বাপ্পি ও তাদের অন্যান্য সহযোগীর বিষয়ে নিশ্চিত হয়ে শুক্রবার পূর্ব রাত সাড়ে ১২ টার দিকে হৃদয়কে অপহরণ ও হত্যাকান্ডের মূলহোতা পরাণকে গ্রেপ্তার করে।

র‌্যাব আরও জানান যে, আসামী পরাণ প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তার সঙ্গীয় বাপ্পি, আকাশ ও শাহীনের সহায়তায় ভিকটিম হৃদয়কে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। সে আরো জানায় তারা দুইজন ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিল পরাণ দরিদ্র হলেও তারা একই সাথে চলাফেরা করতো। এরপর হৃদয়ের পারিবারিক অবস্থা ভালো থাকায় তাকে অপহরণ করে পরিবারের নিকট হতে মোটা টাকা দাবি করার পরিকল্পনা করে। পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী গত ০৮ মে দুপুুরের খাবারের পর আড্ডা দেওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে হৃদয়কে আটকে রেখে ভিকটিমের ব্যবহৃত মোবাইল ফোন হতে তার বাবাকে ফোন করে ৫০লক্ষ টাকা দাবি করে। দীর্ঘ সময় অতিবাহিত হওয়ার পরেও মুক্তি পণের টাকা না পেয়ে তারা সংঘবদ্ধভাবে তার মুখে বালিশ চাপা দিয়ে মৃত্যু নিশ্চিত করে সন্ধায় লাশ বস্তাবন্দী করে সুকৌশলে ঘটনাস্থল হতে রিকশা যোগে শ্রীপুর এলাকায় একটি পরিত্যক্ত ডোবায় ফেলে দিয়ে তারা আত্মগোপন করে। পরবর্তীতে তাকে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে র‌্যাব-৪,সিপিসি-২ সাভার এর নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে বলেও জানান র‌্যাবের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক রফিকুল ইসলাম।#



সতর্কীকরণ

সতর্কীকরণ : কলাম বিভাগটি ব্যাক্তির স্বাধীন মত প্রকাশের জন্য,আমরা বিশ্বাস করি ব্যাক্তির কথা বলার পূর্ণ স্বাধীনতায় তাই কলাম বিভাগের লিখা সমূহ এবং যে কোন প্রকারের মন্তব্যর জন্য ভালুকা ডট কম কর্তৃপক্ষ দায়ী নয় । প্রত্যেক ব্যাক্তি তার নিজ দ্বায়ীত্বে তার মন্তব্য বা লিখা প্রকাশের জন্য কর্তৃপক্ষ কে দিচ্ছেন ।

কমেন্ট

অপরাধ জগত বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

অনলাইন জরিপ

  • ভালুকা ডট কম এর নতুন কাজ আপনার কাছে ভাল লাগছে ?
    ভোট দিয়েছেন ৯৩৯১ জন
    হ্যাঁ
    না
    মন্তব্য নেই